মেইন ম্যেনু

রিটায়ারমেন্টের জন্য টাকা জমানোর কিছু কৌশল

অনেক মানুষ এই ভুলটা করে থাকে যে, তারা তাদের অবসর গ্রহণের পরের সঞ্চয় ও তার ব্যায় নিয়ে চিন্তা করেন না এবং এর ফলে তারা কষ্টের মধ্যে পড়েন। রিটায়ারমেন্টের আগে কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করে টাকার খরচ কমানো যায় এবং সঞ্ছয় করা যায়। আসুন তাহলে জেনে নেই সেই পদ্ধতি গুলো সম্পর্কে।

১। আর্থিক সঙ্গতির নীচে জীবনযাপন করা

সবচেয়ে বাস্তব মুখি উপায় হচ্ছে নিজের আর্থিক সামর্থ্য যেমন আছে তার চেয়ে কম সামর্থ্যবানের মত জীবনযাপন করা। যদিও অনেকেই এটা শুনতে পছন্দ করেননা। টাকার হ্রাস পাওয়ার এবং প্রবাহিত হওয়ার প্রবণতা আছে। আপনার খরচ এই হ্রাস পাওয়া ও প্রবাহিত হওয়ার সাথে মিলাতে হবে। যখন আপনি বেশি উপার্জন করতে পারবেন তখনই বেশি খরচ করতে পারবেন। কিন্তু আপনি যখন অবসরে যাবেন তখন যেনো আপনার কাছে পর্যাপ্ত টাকা থাকে সেই ভাবে সঞ্চয় করুন। আপনি আগামি দশ বছর যে বোনাস পাবেন তা খরচ না করে আপনার কোন বাড়তি আয় হয়নি এটা ভেবে যদি আপনি জীবনযাপন করতে পারেন তাহলে আপনি বেশি সঞ্চয় করতে পারবেন। এছাড়াও অবসরে যাওয়ার পর আপনার উপার্জন যখন বন্ধ হয়ে যাবে তখন খরচের পরিমাণ কমিয়ে দিলেই আপনার সঞ্চিত টাকা বেশি দিন থাকবে। এক্ষেত্রে বাহিরে খেতে যাওয়া ও দামী জিনিষ ক্রয় করা থেকে বিরত থাকুন।

২। বিনিয়োগ করুন

কিছু মানুষ মনে করেন যে, টাকা বিনিয়োগ না করে রেখে দিলে রিটায়ারমেন্টের সময় খরচ করার জন্য টাকা পাবেন। আপনি যদি এখন টাকা বিনিয়োগ না করে রেখে দেন তাহলে এমন কোন নিশ্চয়তা নেই যে আগামী ৩০-৪০ বছর আপনার টিকে থাকার জন্য তা যথেষ্ট হবে। আপনাকে মাথায় রাখতে হবে যে, আপনি যখন অবসরে যাবেন তখন মুদ্রাস্ফীতি হতে পারে অথবা সময়ের সাথে সাথে জিনিষপত্রের মূল্য ও বাড়তে থাকে। তাই টাকা জমিয়ে না রেখে বিনিয়োগ করুন।

৩। বৃদ্ধ বয়স পর্যন্ত বাঁচার পরিকল্পনা করুন

২০১৫ সালে ৬৫ বছরের একজন পুরুষের গড় আয়ু ৮৪ বছর এবং একই বয়সের একজন মহিলার গড় আয়ু ৮৭ বছর। আপনি গড় আয়ুর চেয়েও বেশি দিন বাঁচার সম্ভাবনাই বেশি। অনেক আর্থিক উপদেষ্টার মতে আপনার ৯০-১০০ বছর বাঁচার পরিকল্পনা করা উচিৎ। Franklin এর Preston & Cleveland Wealth Management এর certified financial planner, Bo Hanson বলেন, “সাধারণত আমাদের ৯০-১০৫ বছর বয়সের মধ্যে জীবনাবসান হয়”। Tennessee র মতে, “এই হিসাবটি পারিবারিক ইতিহাস ও স্বাস্থ্য সমস্যার উপর ভিত্তি করে করা হয়”। রিটায়ারমেন্ট পরবর্তী আরো অনেক বছরের জন্যই সঞ্চয় করা উচিৎ।

৪। বেশি কাজ করুন

অনেকেই অবসর গ্রহণের জন্য অধৈর্য হয়ে পড়েন। ৬২ বছর বয়সে নিত্যদিনের প্রতিযোগিতা থেকে মুক্ত হয়ে স্থির হতে চাইলে অবশ্যই দোষারোপ করার কিছু নেই। কিন্তু যদি আপনি বেশি দিন কাজ করেন তাহলেই আপনি আপনার রিটায়ারমেন্টের জন্য টাকা জমাতে পারবেন। যদি সম্ভব হয় তাহলে ৭০ বছর বয়স পর্যন্ত কাজ করুন। বর্তমানে কাজ করলে ভবিষ্যতে রিলেক্স থাকতে পারবেন।

অভিজ্ঞদের মতে সময়ই টাকা, সত্যি কথা বলতে, সময় টাকার চেয়ে অনেক বেশি মূল্যবান। সময়ে আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারবেন, এবং আপনি যদি সময়কে ভালোভাবে কাজে লাগাতে পারেন তবেই আপনি অনেক বেশি অর্জন করতে পারবেন।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই