মেইন ম্যেনু

রিয়ালের জন্য বার্সাকে হারাতে চান মোরাতা!

গত চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে খেলেছিলেন আলভারো মোরাতা। এবারও ইউরোপের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ এই টুর্নামেন্টের ফাইনালে খেলতে যাচ্ছেন তিনি। পার্থক্য শুধু একটাই, সেবার খেলেছিলেন রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতে আর এবার জুভেন্টাসের হয়ে। গতবার চ্যাম্পিয়নস লিগে রিয়ালের ‘লা দেসিয়া’ অর্থাৎ দশম শিরোপা জয়েরও অংশ ছিলেন মোরাতা। ফুটবলের কী নির্মমতা, এ মৌসুমে তার গোলেই চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে বিদায় নেয় রিয়াল!

সেমিফাইনালের দুই লেগে মোরাতার গুরুত্বপূর্ণ দুটি গোলে রিয়ালকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে ওঠে জুভেন্টাস। আগামী ৬ জুন ফাইনালে আরেক স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনার বিপক্ষে খেলবে ইতালির ক্লাবটি। আর রিয়াল মাদ্রিদের সমর্থকদের জন্য ফাইনালে বার্সাকে হারাতে চান মোরাতা। মূল কথা, এই স্প্যানিশ স্ট্রাইকার সেমিফাইনালে রিয়ালকে হারিয়ে ক্লাবটির সমর্থকদের মনে যে ক্ষত সৃষ্টি করেছেন তাতে সান্ত্বনার প্রলেপ দিতে চান!

স্পেনের এক রেডিওকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মোরাতা বলেন, ‘রিয়াল মাদ্রিদের সমর্থকদের জন্য আমি বার্সেলোনাকে হারানোর চেষ্টা করব। বার্সার বিপক্ষে গোল করা বিশেষ কিছু নয়, তবে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালের জন্য অবশ্যই বিশেষ কিছু। ফাইনালে আমার গোল করা প্রয়োজন। যদিও চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে বার্সেলোনার বিপক্ষে গোল করা সহজ হবে না।’

২০১০-১১ মৌসুমে থেকে ২০১৩-১৪ মৌসুমে পর্যন্ত রিয়ালের মূল দলে খেলেছেন মোরাতা। তার আগে রিয়ালের ‘বি’ দল ও যুব দলেও খেলেছেন এই স্প্যানিশ স্ট্রাইকার। মোরাতা বলেন, ‘আমি কয়েক বছর রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে খেলেছি। তবে এটা আমার জন্য অতিরিক্ত অনুপ্রেরণা নয়। কারণ চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে খেলার জন্য আপনার অতিরিক্ত অনুপ্রেরণার দরকার নেই। তবে বার্সার বিপক্ষে খেলা সব সময়ই আমার জন্য বিশেষ কিছু।’

এদিকে দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন বার্সার আক্রমণভাগের ত্রয়ী লিওনেল মেসি, নেইমার ও লুইস সুয়ারেজ। এ মৌসুমে তিনজন মিলে করেছেন ১২০ গোল, যা স্পেনের কোনো ক্লাবের ত্রয়ীর এক মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ডও। বার্সা ত্রয়ীর প্রশংসা করতেও তাই ভুল করেননি মোরাতা, ‘মেসিকে আটকানো সত্যিই খুব কঠিন। তবে বার্সেলোনায় শুধু তিনি একাই নেই। নেইমার ও সুয়ারেজও আপনাকে কম ভোগাবে না। যদি আপনি শুধু মেসিকে নিয়ে চিন্তা করেন তাহলে অন্য দুইজন আপনাকে শেষ করে দেবে।’

বার্সার প্রশংসায় মোরাতা বলেন, ‘বার্সার শুধু আক্রমণভাগই সেরা নয়, তাদের রক্ষণভাগও উচ্চ মানের। তারা বিশ্বের সেরা দল। তবে আমি নিশ্চিত তারাও আমাদের সম্মান করবে। কারণ আমরা কোনো অঘটনের মাধ্যমে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে উঠিনি।’

বার্সেলোনা-জুভেন্টাসের মধ্যে যে দল চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা ঘরে তুলবে তারাই ট্রেবল জিতবে। কারণ দুই দলই নিজ নিজ দেশের লিগ ও কাপ শিরোপা জিতে নিয়েছে। অবশ্য ট্রেবলটা জুভেন্টাসের জন্য হবে প্রথম। আর বার্সার জন্য দ্বিতীয়। এর আগে ২০০৯ সালে একবার ট্রেবল জিতেছিল বার্সা।






মন্তব্য চালু নেই