মেইন ম্যেনু

রিয়াল ছেড়ে পিএসজিতে যাচ্ছেন রোনালদো!

গ্রেনাডা, অ্যাথলেটিক বিলবাও, মালাগা ও অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ – চার ম্যাচ মিলে মোট ৩৯৯ মিনিট গোল শুণ্য ছিলেন তিনি। তবে, লেভান্তের বিপক্ষে গোল দিয়ে সেই ক্ষরা কাটালেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। আর এই গোলের মধ্য দিয়ে রাউলকে ছাড়িয়ে রিয়াল মাদ্রিদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবে লেখা হয়ে গেলো তার নাম।

তবে, চাঁদের হাঁটেও আছে বিষাদের ছায়া। এতো অর্জনের পরও ভেঙে যাচ্ছে রিয়াল-রোনালদো সম্পর্ক!

কোচ রাফায়েল বেনিতেজের আগমনের পর থেকেই রিয়াল মাদ্রিদে রোনালদোর ভবিষ্যত নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়েছিল। রাফায়েল বেনিতেজ যে একেবারেই খেলোয়াড়দের মন জয় করে চলতে পারেন না সেটা বলে না দিলেও চলে; আর দলের তারকা খেলোয়াড়দের সাথে তার ঝামেলায় জড়ানোও নতুন কোন ঘটনা নয়।

তাই, স্কাই স্পোর্টসের ফুটবল বিশেষজ্ঞ গুইলেম ব্যালাগ যখন বলে দিলেন স্প্যানিশ জায়ান্টদের সাথে ক্রিশ্চিয়ানো’র এটাই শেষ বছর তখন তাতে খুব একটা বিস্ময় প্রকাশ করার সুযোগ নেই। আর এদিকে মরিয়া ফরাসি ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেইনের (পিএসজি) গতিবিধি লক্ষ করলে একটা পরিষ্কার চিত্র সামনে চলে আসে।

আর সেটা হল, রিয়ালে নিজের শেষ দেখে ফেলেছেন পর্তুগীজ তারকা ফুটবলার রোনালদো। আর তিন বারের ফিফা-ব্যালন ডি’অর বিজয়ী এই তারকাকে ছেড়ে দিতে প্রস্তুত রিয়াল মাদ্রিদ। আর সব কিছু ঠিক ঠাক থাকলে এই বছরের শেষেই পিএসজিতে চলে যাবেন তিনি।

ব্যালাগ বলেছে, ‘সব কিছু দেখে মনে হচ্ছে, রিয়াল মাদ্রিদে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর এটাই শেষ মৌসুম হতে যাচ্ছে। আর এটাও মনে হচ্ছে যে, পরিস্থিতি যতটা ঘোলাটে হচ্ছে তাতে রোনালদোকে হারানোর প্রাক্কালে ঠিক পুরোপুরি অখুশিও নয় রিয়াল মাদ্রিদ।’

রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে ৩১০ ম্যাচে ৩২৪ টি গোল করেছেন রোনালদো। আর এর মধ্যে চলতি মৌসুমে তার গোল ছয়টি। এর মধ্যে পাঁচটিই এস্প্যানিওলের বিপক্ষে।

রোনালদো রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়লে কোন ক্লাবে তিনি যাবেন এখনও সেটাই দেখার বিষয়। ইএসপিএন এফসি.কমের কয়েকটি সূত্র বলছে যুক্তরাষ্ট্রের মেজর লিগ সকারেও খেলার সম্ভাবনা আছে সিআর সেভেনের। আবার চলতি, মৌসুমের শুরুতে শোনা গিয়েছিল আবারও পুরনো ঠিকানা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড শিবিরে ফিরে যাবেন রোনালদো।






মন্তব্য চালু নেই