মেইন ম্যেনু

রেকর্ড গড়ে ভারতের জয়

সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে ভারত জিতবে তা ম্যাচের আগেই অনুমিত ছিল। তাইত মূল একাদশে তিন পরিবর্তন। ব্যাটিংয়ে কোনো পরিবর্তন না আনলেও বোলিংয়ে মূল তিন অস্ত্রকেই বিশ্রাম দিয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি।

আশিষ নেহরা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও রবিন্দ্র জাদেজার বদলে দলে আসেন ভুবনেশ্বর কুমার, হরভাজন সিং ও পায়ান নিগে। তিন মূল অস্ত্রকে ছাড়া টসে হেরে বোলিংয়ে ভারত। নিয়মিত দলের তিন বোলার নেই তাতেও কুপোকাত সংযুক্ত আরব আমিরাত। ৮১ রানে শেষ তাদের ইনিংস।

জবাবে ভারতের জয় নিশ্চিত হয় ১০.১ বলে। ৯ উইকেট ও ৫৯ বল হাতে রেখে ভারতের জয়টি ছিল রেকর্ডময়। বল পুঁজিতে রেখে এতবড় জয় এর আগে পায়নি ভারত। এর আগে ৩৭ বল হাতে রেখে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৮৩ রানের টার্গেটে জয় পেয়েছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। এবার সে রেকর্ড গেল চূঁড়ায়।

মিরপুরে স্পোর্টিং উইকেটে ভারতের মিশ্র বোলিং আক্রমণে ইউএই ছিল একেবারেই নরবড়ে। ওপেনার রোহান মুস্তাফা (১১) ও সায়মান আনোয়ার (৪৩) ছাড়া কেউই দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছতে পারেননি। সর্বোচ্চ ৪৩ রান করা সায়মান আনোয়ার ৪৮ বলে ৩ চার ও ১ ছক্কায় ইনিংসটি সাজান। ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ ২টি উইকেট নেন ভুবনেশ্বর কুমার। তার বোলিং স্পেলটিও ছিল অসাধারণ। ৪-২-৮-২। যেখানে ডট বলই ছিল ২০টি!

জবাবে স্বল্প রানের পুঁজিতে লড়াকু ইউএই ভারতের নির্ভার ও অভিজ্ঞতার সামনে হার মানেন। দলীয় ৪৩ রানে রোহিত শর্মা (৩৯) বিদায় নিলেও ভারতের জয় পেতে কোনো সমস্যা হয়নি। ৫০তম টি-টোয়েন্টি খেলতে নামা যুবরাজ ২৫ ও আগের থেকেই ক্রিজে থাকা শেখর ধাওয়ান ১৬ রানে অপরাজিত থেকে জয় নিশ্চিত করেই মাঠ ছাড়েন। ২৮ বলে ৭ চার ও ১ ছক্কায় ৩৯ রানের ছোট্ট ক্যামিও ইনিংস খেলে ম্যাচসেরা নির্বাচিত হন রোহিত শর্মা।






মন্তব্য চালু নেই