মেইন ম্যেনু

রেলমন্ত্রীর বউ ভাগ্য

সুস্থ হয়ে দেশে ফিরে প্রধানমন্ত্রী এবং দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক। দ্রুত সুস্থ হয়ে দেশে ফেরার পেছনে স্ত্রীর অসামান্য অবদানের কথাও বলেছেন তিনি। দুয়েক দিনের মধ্যে কর্মস্থলে যোগদানের আশা প্রকাশ করেছেন মন্ত্রী।

২৮ রমজানের দিন নিজের নির্বাচনী এলাকায় তারাবী নামাজ পড়ার সময় হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়েন রেলমন্ত্রী। দ্রুত তাকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তির পর অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে তাৎক্ষণিকভাবে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

সেখানে অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় পরদিন তাকে সিঙ্গাপুরের জেনারেল হাসাপাতালে রেফার করেন সিএমএইচ’র ডাক্তাররা। সিঙ্গাপুরে প্রায় ১৫দিনের চিকিৎসা শেষে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইটে তিনি দেশে ফেরেন। সে সময় মন্ত্রণালয় এবং রেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা তাকে স্বাগত জানান।

সামান্য আনুষ্ঠানিকতা শেষে বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের কাছে তার সুস্থতার জন্য দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন মন্ত্রী।

‍মুজিবুল হক বলেন, সিঙ্গাপুরে বসেই আমি বিভিন্ন টেলিভিশনে আমার জন্য দোয়া করতে দেখেছি। দেশের মানুষের ভালোবাসায় আমি মুগ্ধ।

এসময় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশের কথা বারবার স্মরণ করে বলেন, আমি অসুস্থ হলে প্রথমেই প্রধানমন্ত্রী আমার খোঁজ-খবর নেন। সেনাবাহিনী প্রধানকে আমার চিকিৎসার ব্যাপারে খোঁজ-খবর নেওয়ার নির্দেশ দেন। সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে তার প্রাথমিক চিকিৎসার দেওয়ার জন্য সেনাবাহিনী এবং সংশ্লিষ্ট ডাক্তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এক পর্যায়ে তিনি পাশে বসে থাকা স্ত্রী অ্যাডভোকেট হনুফা আক্তার রিক্তাকে দেখিয়ে বলেন, আমার এই দ্রুত সুস্থ হয়ে দেশে ফেরার পেছনে আমার স্ত্রীর অসামান্য অবদান রয়েছে। সে পাশে থেকে আমাকে যে সেবা দিয়েছে তার জন্য আমি তার প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

নিজের সুস্থতার জন্য সাংবাদিকদের কাছেও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন মন্ত্রী।

শাহাজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বের হয়ে যাওয়ার সময় বিমাবন্দরের ভিআইপি গেটে অপেক্ষারত নেতাকর্মীদের হাত নেড়ে তিনি সাধুবাদ জানান।

আগামী দুয়েক দিনের মধ্যে নিজ কর্মস্থল এবং নিয়মিত রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে অংশ নেওয়ার আশা প্রকাশ করেন রেলমন্ত্রী।






মন্তব্য চালু নেই