মেইন ম্যেনু

রেসলিং কি, আসল না নকল? জেনে নিন অজানা রহস্য!

টেলিভিশন কিংবা ইন্টারনেটে রেসলিং দেখেননি এমন খুব কম লোকই আছে! অনেকের কাছেই এটি জনপ্রিয় প্রোগ্রাম। কিন্তু ম্যাজিকের মতই সারা বিশ্বে রেসলিং এর রহস্য সবার অজানা।

গত কয়েক দশক ধরে চলা জনপ্রিয় এই রেসলিং কে নিয়ে মানুষের মধ্যে রয়েছে নানা রকম জল্পনা কল্পনা। রেসলিং এ এত আঘাতের পরেও মানুষ কিভাবে বেঁচে থাকে এটা নিয়েও সবার মনে রয়েছে নানা সন্দেহ। আর যারা এই রেসলিং এর সাথে জড়িত তারা কখনই এ ব্যাপারে প্রকাশ্যে কিছু বলেন না। রেসলিং সম্বন্ধে জেনে নিন অজানা কিছু তথ্য।

রেসলিং কি আসলেই নকল?
হ্যা, রেসলিং একটি অসাধারণ মঞ্চ নাটক ছাড়া আর কিছুই না। তবে সাধারণ মঞ্চ নাটকের সাথে এর পার্থক্য হল মঞ্চে রেসলারদের ভুল গুলো সহজেই চোখে পরে আর রেসলিং সারা বিশ্বের মানুষ নানা প্রান্ত থেকে উপভোগ করে।

যেখানে বড় বড় তারকা রেসলাররা লড়াইয়ে জিতে বেশি আয় করে সেখানে কেন একজন রেসলার হেরে যায়?

এটার কারণও খুব স্বাভাবিক। মঞ্চ নাটকের মত এটারও একটা স্ক্রিপ্ট থাকে যাতে বিভিন্ন অভিনেতারা বিভিন্ন চরিত্রে কাজ করে থাকে। যদি একজন রেসলার নিজে জিততে চায় তাহলে সে শীঘ্রই তার চাকরি হারাবে।

রেসলাররা কি সত্যিই আহত হয়?
এটাও লেখকদের স্ক্রিপ্টে থাকা নকল মারামারির আহত হওয়ার এক দৃশ্য ছাড়া আর কিছুই না। মঞ্চটি রেসলারদের জন্য পুরোপুরি সহায়কভাবেই তৈরি করা থাকে। সেই সাথে রেসলারদের জন্য মঞ্চে নানা রকম আহত হওয়ার আর্ট তৈরি করে রাখা হয় যা সত্যিই একটু বিপদজনক। কোন রেসলার যদি সেই আর্ট অনুযায়ী কাজ না করে একটুও ভুল করে তবে সে মারাত্মক ভাবে আহত হতে পারে। তবে কখনই কোন রেসলার তার প্রতিপক্ষকে ইচ্ছে করে আঘাত করে না ঠিক যেমনটি আমরা চলচ্চিত্রে দেখে থাকি। তবে অনেক সময় অনিচ্ছাকৃত ভুলের কারনে প্রতিপক্ষ আঘাতপ্রাপ্ত হয়। এমন একজন রেসলারও পাওয়া যাবে না যে এই মঞ্চে আঘাতপ্রাপ্ত হয়নি। অনেকে বড় ধরনের আঘাত পেয়ে তারা ক্যারিয়ারের ইতি টেনেছেন।

রেসলিং এর সময় যে রক্ত দেখা যায় তা কি আসল?
বেশিরভাগ সময়ই সেগুলো সত্তিকারের রক্ত থাকে। রেসলারদের শরীরে বিভিন্ন জায়গায় এক ধরনের ব্লেড ব্যবহার করা হয়। তবে অনেক সময় অসতর্কতার কারনে শরীরের অন্য অংশ থেকেও রক্ত ঝরে। এছাড়া রেসলিং এর সময় ব্লাড ক্যাপসুল ব্যবহার করা হয়। তবে কখনই রং অথবা সস ব্যবহার করা হয় না।

রেসলাররা কি অবৈধ ড্রাগ গ্রহণ করে?
সব রেসলাররা অবৈধ ড্রাগ বা স্টেরয়েড জাতীয় ঔষধ ব্যবহার করে না। অন্যান্য খেলায় পারদর্শী খেলোয়াড়দের মত রেসলাররাও স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় জিম করে ও হরমোন বৃদ্ধির জন্য চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী খাবার খায়। তবে অনেক রেসলার গোপনে ড্রাগ নিয়ে থাকলেও অবাক হওয়ার কিছুই নেই।

রেসলিং মঞ্চে রেসলারদের বান্ধবীরা কি সত্যিই তাদের বান্ধবী?
না, রেসলিং মঞ্চে শুধু মাত্র ফ্যামিলি ড্রামা করার জন্যই রেসলারদের কাছে এ ধরনের সঙ্গিনী পাঠানো হয়। তারাও নানা রকম ভঙ্গির মাধ্যমে রেসলিং কে আরও আকর্ষণীয় করে তোলার চেষ্টা করে থাকে।

রেসলিং এ রেফারিরা এত অসহায় থাকে কেন?
অন্যান্য খেলার মত রেসলিং এর রেফারিরা এতটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে না এছাড়া তাদের আচরণেও অত্যন্ত অসহায় ভাব প্রকাশ পায়। রেফারিদের এ ধরনের আচরণও নাটকেরই একটা অংশ। রেফারিদের কানে সবসময় একটা হেডফোন লাগানো থাকে। তারা পরিচালকের দেওয়া নির্দেশনা অনুযায়ী রেসলিং পরিচালনা করেন।






মন্তব্য চালু নেই