মেইন ম্যেনু

রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করে মেরে ফেলার নির্দেশ চিকিৎসকের!

প্রাণ বাঁচানোর দায়িত্ব যাঁদের হাতে, তাঁদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আগেও উঠেছে৷ চিকিৎসা পরিষেবায় অর্থই যে অনর্থের মূল হয়ে উঠেছে তাও বিভিন্ন ঘটনায় টের পাওয়া যায়৷ এবার প্রকাশ্যেই এক চিকিৎসককে বলতে শোনা গেল, রোগীকে ভর্তি করিয়ে মেরে ফেলার কথা৷

ঘটনা আগ্রার এসএন মেডিক্যাল কলেজের৷ বছর আঠেরোর মুকেশ প্রজাপতি টিবিতে ভুগছিলেন৷ পেটে প্রচণ্ড যন্ত্রণা হওয়ায় তাঁকে ওই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সে সময় তাঁকে ভর্তি নিতে চায় না মেডিক্যাল বিভাগ৷ দেওয়ালে সার্জারি বিভাগের প্রধানের নম্বর দেখে মুকেশের ফোন থেকেই ওই চিকিৎসককে ফোন করেন তার বাবা৷ কিছুক্ষণ পর অবশ্য মুকেশের মৃত্যু হয়৷

এরপর ফোনের রেকর্ডিং শুনতে গেলেই ঝুলি থেকে বেড়াল বেরিয়ে আসে৷ চিকিৎসকদের অজান্তেই ফোন রেকর্ড করেছিলেন মুকেশের বাবা৷ পরে শুনে দেখেন ওই সিনিয়র চিকিৎসক তাঁর জুনিয়রকে নির্দেশ দিচ্ছেন, রোগীকে ভর্তি করে নেওয়ার৷ তারপর রোগীকে মেরে ফেলার কথাও বলছেন৷ বলছেন, রোগীর পরিবারকে রক্ত আনতে বলার কথা, যাতে আপনিই তারা হাসপাতাল ছাড়তে বাধ্য হয়৷

এই ফোন রেকর্ডিং নিয়েই পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছে মুকেশের পরিবার৷ অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ সংশ্লিষ্ট কলেজে চিঠিও পাঠিয়েচে৷ রিপোর্ট পেলেই পরবর্তী পদক্ষেপ করা হবে বলে পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে৷-সংবাদ প্রতিদিন






মন্তব্য চালু নেই