মেইন ম্যেনু

রোনালদোর বসের অপেক্ষায় ভ্যালেন্সিয়া

রিয়াল মাদ্রিদের কোচ রাফায়েল বেনিতেজ যাচ্ছেন প্রতিপক্ষ হিসেবে। স্বাভাবিকভাবে তার প্রতি একটা প্রতিযোগী মনোভাব থাকার কথা ভ্যালেন্সিয়া সমর্থকদের। অথচ ঘটনা উল্টো ঘটতে যাচ্ছে। রোনালদোদের বস বেনিতেজকে উষ্ণ সংবর্ধনা জানাতে মেস্তাল্লা স্টেডিয়াম এখন প্রস্তুত। রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে হোম ম্যাচের সময়ই বেনিতেজের প্রতি বিরল ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ ঘটাবেন তারা। রোববার রাত দেড়টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

ম্যাচটা রিয়ালের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এখানে পয়েন্ট হারালে টেবিলের শীর্ষে থাকা অ্যাতলেটিকো থেকে অনেকটাই পিছিয়ে পড়বে মাদ্রিদের ক্লাবটি। এই ম্যাচ জিতলে বার্সার সঙ্গে পয়েন্টে সমতায় ফিরবে রিয়াল। যদিও কাতালানরা একটি ম্যাচ কম খেলেছে। রিয়াল কোচ হয়তো সেই অঙ্ক কষতেই ব্যস্ত।

কিন্তু ভ্যালেন্সিয়ার সমর্থকরা এতোটা অকৃতজ্ঞ নন। এক যুগ আগের ইতিহাস তারা ভুলে যাননি। ২০০১ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত ভ্যালেন্সিয়া দলের ম্যানেজার ছিলেন বেনিতেজ। ওই সময়ে দলটি দুবার লা লিগা ও একবার উয়েফা সুপার কাপ জিতেছে। এরপর থেকে একটি কোপা দেল রে শিরোপা ছাড়া বড় কোনো অর্জন নেই ভ্যালেন্সিয়ার। তাই তো বেনিতেজকে মনের গহিনে খুব ভালোভোবেই স্থান দিয়ে রেখেছে দলটির সমর্থকরা।

ইতালি ও ইংলিশ লিগে একাধিক ক্লাবের দায়িত্ব পালন করলেও স্পেনে এবারই প্রথম প্রত্যাবর্তন বেনিতেজে। তাই নিজের সাবেক ঠিকানায় যেতে হচ্ছে তাকে শত্রু হয়ে। তবে সেই ভ্রমণে শত্রুতা নয়, শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হবেন তিনি। তার জন্য সমর্থকরা ৬০ মিটার দীর্ঘ এক ব্যানার রোববার বিকেলেই স্টেডিয়ামে টানাবে ভ্যালেন্সিয়া সমর্থকরা। যেখানে লেখা থাকবে ‘সবসময় কৃতজ্ঞ’।

প্রতিপক্ষের কোচের মুখেও তাই প্রশংসা ঝড়ল বেনিতেজের। তবে রেফারির বাঁশি বাজার পর আর কোনো সম্মান যে থাকবে না, সে কথাও স্মরণ করালেন তিনি। ভ্যালেন্সিয়া কোচ গ্যারি নেভিল বলেন, ‘তিনি যা অর্জন করেছেন তাতে সমর্থকদের ধন্যবাদ পেতেই পারেন। তবে এই কৃতজ্ঞতা তখনই সমাপ্ত হবে, যখন রেফারির খেলা শুরুর বাঁশি বাজবে।’






মন্তব্য চালু নেই