মেইন ম্যেনু

র‌্যাগিং ঠেকাতে কঠোর অবস্থানে জাবি প্রশাসন

শাহাদাত হোসেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিং ঠেকাতে আজীবন বহিষ্কারের বিধানসহ কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে বিশ^বিদ্যালয় প্রশাসশন। প্রতি বছর নবীন শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাসে আগমণ উপলক্ষে র‌্যাগিংয়ের মতো নেতিবাচক কর্মকা- হয়ে থাকে। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন র‌্যাগিংয়ের বিরুদ্ধে কঠোর ভূমিকা পালনের জন্য প্রস্তুতি নিয়েছে। শনিবার ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের প্রথমবর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীর নবাগত শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরু হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও হল প্রাধ্যক্ষ কমিটির সূত্রে জানা যায়, র‌্যাগিংয়ের সঙ্গে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে জড়িত ব্যক্তির বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা অধ্যাদেশ অনুযায়ী আজীবন বহিষ্কারের বিধানসহ কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ ছাড়া অভিযুক্তকে রাষ্ট্রীয় আইনের আওতায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে সোপর্দ করা হবে। র‌্যাগিংয়ের সঙ্গে জড়িতদের বিষয়ে প্রশাসনকে তথ্য দিয়ে সহায়তা করলে তথ্যদাতার পরিচয় গোপন রাখা হবে। কোনো ধরনের দৈহিক ও মানসিক পীড়ন, অশোভন আচরণ, কারো অধিকারে হস্তক্ষেপ, মত প্রকাশে বাধাদান, জোরপূর্বক কোনো রাজনৈতিক মতবাদে বিশ্বাসী করা, রাজনৈতিক সংগঠনে যুক্ত হতে বাধ্য করা, কারো সামাজিক মর্যাদাহানিকর কর্মকা- চাঁদাবাজি, মুক্তিপণ, ঘুষ বা যে কোনো ধরনের আর্থিক অনাচার এবং বল প্রয়োগ আইনের অপরাধ হিসেবে এই র‌্যাগিং অপরাধ গণ্য হবে।

র‌্যাগিংয়ের মতো এমন ভয়াবহ মানসিক ও শারীরিক লাঞ্ছনার হাত থেকে নতুন শিক্ষার্থীদের রক্ষা করতে গত বুধবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয় ভিসির বাস ভবনে হল প্রাধ্যক্ষ কমিটি ও প্রক্টরিয়াল বডির একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় কোনো হলে র‌্যাগিংয়ের ঘটনা ঘটলে হল প্রাধ্যক্ষদের তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য বলা হয়েছে। ক্যাম্পাসের বিভিন্ন জায়গায় র‌্যাগিংয়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রক্টরিয়াল বডিকে কঠোর ভূমিকা পালনের জন্য বলা হয়।

অন্যদিকে সব বিভাগীয় সভাপতি ও বিভাগের ছাত্রকল্যাণের দায়িত্বে থাকা শিক্ষকদের নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ভিসি অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম একটি সভা করবেন বলে জানা গেছে। সে সভায় বিভাগীয় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের র‌্যাগিংয়ের ব্যাপারে সোচ্চার করা হবে।

এছাড়া গত বুধবার বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির এক সাধারণ সভায় র‌্যাগিংয়ের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান গ্রহণের জন্য শিক্ষকদের আহ্বান করা হয়েছে।

প্রাধ্যক্ষ কমিটির সভাপতি অধ্যাপক সৈয়দ হাফিজুর রহমান বলেন, র‌্যাগিং নিয়ে আমরা প্রাধ্যক্ষ কমিটি কয়েক দফা মিটিং করেছি।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও জাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহমেদ রাসেল বলেন, র‌্যাগিং প্রতিরোধ করার জন্য আমরা প্রত্যেকটি হলে জুনিয়র কর্মীদের পাশাপাশি সিনিয়রদের বলে দিয়েছি যাতে এই কর্মকা- তারা এড়িয়ে চলেন।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর অধ্যাপক ড. তপন কুমার সাহা বলেন, ক্যাম্পাস যাতে র‌্যাগিংমুক্ত রাখা যায়- সে জন্য আমরা প্রক্টরিয়াল টিম খুবই সতর্ক অবস্থানে আছি। ইতোমধ্যে সাংবাদিক সমিতি ও ছাত্রলীগের সঙ্গে বসেছি। তাদের সুপরামর্শগুলো গ্রহণ করেছি।

প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আবুল হোসেন বলেন, এরই মধ্যে হল প্রাধ্যক্ষ, প্রক্টরিয়াল বডি ও বিভাগীয় সভাপতিদের র‌্যাগিংয়ের বিষয়ে সতর্ক হওয়ার জন্য বলা হয়েছে। এবারও শৃঙ্খলা বিধি অনুয়ায়ী র‌্যাগিংয়ের শাস্তি স্বরূপ জরিমানাসহ বহিষ্কারের মতো কঠোর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।






মন্তব্য চালু নেই