মেইন ম্যেনু

র‌্যাব পরিচয়ে ছাত্রলীগ নেতাকে তুলে নেয়ার অভিযোগ

রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক সাইফুজ্জামান সোহাগকে র‌্যাব পরিচয়ে তুলে নেয়ার অভিযোগ করেছে তার পরিবার। নগরীর তেরখাদিয়া এলাকা থেকে তাকে তুলে নেয়া হয় বলে শুক্রবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন সোহাগের বাবা আককাসউজ্জামান। এ ঘটনায় রাজপাড়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। তবে সোহাগকে আটকের কথা অস্বীকার করেছে র‌্যাব।

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়, গত ৯ ডিসেম্বর রাত তিনটার দিকে র‌্যাবের পোশাকধারী ৬/৭জন তেরখাদিয়া পশ্চিমপাড়া এলাকায় সোহাগের বাড়িতে যান। র‌্যাবের পোশাক পরা দেখে বাড়ির লোকজন দরজা খুলে দিলে র‌্যাব সদস্যরা সোহাগের ঘরে ঢুকে তার কাছ থেকে ল্যাপটপ ও মোবাইলের মেমোরি কার্ডসহ অন্যান্য ইলেকট্রনিক ডিভাইস চায়। সেগুলো নেয়ার পরই তারা সোহাগকে একটি মাইক্রোবাসে উঠিয়ে নিয়ে চলে যায়।

সংবাদ সম্মেলনে সোহাগের মা বেগম শিরিনউজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, আমার ছেলে যদি কোনো অপরাধ করে থাকে, তাহলে শাস্তি দেয়া হোক। কিন্তু র‌্যাব সদস্যরা তাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার পর আমার সোহাগের কোনো সন্ধান পাচ্ছি না। আমার ছেলে জীবিত না মৃত তাও জানি না।

সংবাদ সম্মেলনে কান্নায় ভেঙে পড়েন ছাত্রলীগ নেতা সোহাগের মা বেগম শিরিনউজ্জামান, স্ত্রী ফারজানা রহমান শোভা ও শ্বশুর দুলাল রহমানসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা। তারা সোহাগের সন্ধান পেতে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মমর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।






মন্তব্য চালু নেই