মেইন ম্যেনু

লাইটারের আগুনে প্রেমিকাকে জীবন্ত পোড়ালো প্রেমিক

একসময় দুজনে দুজনার হয়ে হাত ধরে হেঁটেছেন কত, উপভোগ করেছেন প্রেমময় জীবন।

সেই ভালোবাসার মানুষটিকেই লাইটারের আগুন জ্বালিয়ে পুড়িয়ে মারলেন প্রেমিক। তার দোষ একটাই, দুজনের মধ্যে বিচ্ছেদ হয়ে গেছিল।

এমন ঘটনা ঘটেছে গত রোববার ইতালির রোমে।

রোম ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী ছিলেন ২২ বছর বয়সী সারা দি পিয়েট্রানটোনিও। তার ২৭ বছর বয়সী বন্ধু ভিসেনজো পাডুয়ানোর সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙতে চাচ্ছিলেন তিনি।

ভেঙেও গিয়েছিল সেই সম্পর্ক। তবুও নিজেকে বাঁচাতে পারলেন না। গত রোববার সকালে সারার গাড়িতে আগুন ধরিয়ে হত্যা করে প্রেমিক ভিসেনজো।

শরীরে অ্যালকোহল ছড়িয়ে সিগারেটের লাইটারের আগুন জ্বালিয়ে দেয় প্রেমিক। সারাকে এভাবে হত্যার কথা নিজেই স্বীকার করেছেন।

নিজেকে পরিত্যক্ত হিসেবে মেনে নিতে পারছিলেন না তিনি। তাই পরিকল্পনা করেই হত্যাকাণ্ড ঘটান তিনি। এ কথা জানিয়েছেন মামলাটির প্রসিকিউটর।

ওই ঘটনাটির তদন্ত কর্মকর্তা লুইগি সিলিপো জানিয়েছেন, তিনি ২৫ বছরের ক্যারিয়ারে এমন ঘটনা প্রথম দেখছেন।

পেশায় সিকিউরিটি গার্ড ভিসেনজো ঘটনার অাগের দিন রাত তিনটার দিকে অফিস থেকে বেরিয়ে সারার বর্তমান প্রেমিকের বাসার সামনে গিয়ে অপেক্ষা করেন।

সেখান থেকে সারা বেরোতেই তাকে অনুসরণ করে সাবেক প্রেমিক। গাড়ি ড্রাইভ করে কিছুদূর যাওয়ার পরই জোর করে সারাকে রাস্তার পাশে গাড়ি দাঁড় করাতে বাধ্য করেন ভিসেনজো।

এরপর গাড়ির ভেতরে এবং সারার গায়ে অ্যালকোহল ছড়িয়ে দেন তিনি। এরপর তাতে আগুন ধরিয়ে দেন।

আশপাশের ক্যামেরাতে সেই সময়ের কিছু চিত্র ধরা পড়েছে। তাতে দেখা গেছে দুটি কারের ছুটে চলা। এরপরই মেয়েটার সাহায্যের জন্য চিৎকার শোনা যায়।






মন্তব্য চালু নেই