মেইন ম্যেনু

লাইফ সাপোর্টে নায়করাজ রাজ্জাক

বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি অভিনেতা নায়করাজ রাজ্জাক লাইফ সাপোর্টে রয়েছেন।

গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় রাজধানীর গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করার পর অবস্থার অবনতি হলে সেখানকার নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) তাকে লাইফ সাপোর্টে (কৃত্রিম শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমে বাঁচিয়ে রাখা) রাখা হয়েছে।

ইউনাইটেড হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের শিফট ইনচার্জ নাম প্রকাশ না করার শর্তে রবিবার রাত ১০টার দিকে নায়করাজ রাজ্জাককে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন। কিংবদন্তি এই নায়ক হাসপাতালটির আইসিইউর ৬ নম্বর বেডে ভর্তি রয়েছেন।

নায়করাজ রাজ্জাকের বড় ছেলে বাপ্পারাজ রবিবার রাতে জানান, শনিবার তার বাবার শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায়। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়।

তিনি তার বাবার সুস্থতা কামনায় দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

১৯৬৬ সালে ‘আখেরি স্টেশন’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে রাজ্জাক চলচ্চিত্র অভিনেতা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। সালাউদ্দিন প্রোডাকশনসের তেরো নাম্বার ফেকু ওস্তাগর লেন চলচ্চিত্রে ছোট একটি চরিত্রে অভিনয় করে সবার কাছে নিজ মেধার পরিচয় দেন রাজ্জাক। পরবর্তী সময়ে বেহুলা চলচ্চিত্রে তিনি নায়ক হিসেবে ঢালিউডে উপস্থিত হন সদর্পে। তিনি প্রায় ৩০০টি বাংলা ও উর্দু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। পরিচালনা করেছেন প্রায় ১৬টি চলচ্চিত্র।

১৯৯০ সাল পর্যন্ত বেশ দাপটের সঙ্গেই ঢালিউডে সেরা নায়ক হয়ে অভিনয় করেন রাজ্জাক। এর মধ্য দিয়েই তিনি অর্জন করেন নায়করাজ রাজ্জাক খেতাব। অর্জন করেন একাধিক সম্মাননা। ২০১৩ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র আজীবন সম্মাননা পুরস্কার এবং ২০১৪ সালে মেরিল-প্রথম আলো আজীবন সম্মাননা পান তিনি।

১৯৪২ সালের২৩ জানুয়ারি রাজ্জাক ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার টালিগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন।






মন্তব্য চালু নেই