মেইন ম্যেনু

লামায় প্রধান শিক্ষিকাকে পুনবহালের দাবিতে বিক্ষোভ ও স্মারকরিপি

মোহাম্মদ শামছুদ্দোহা, উপজেলা সংবাদদাতা, লামা (বান্দরবান) : লামায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকাকে পুনরায় বহাল রাখতে বিক্ষোভ ও স্মারকরিপি দিয়েছে অভিভাবক ও এলাকাবাসি। ৯ মার্চ বুধবার বেলা ১১ঘটিকায় সাবেক বিলছড়ি এলাকার প্রায় দুই শতাধিক অভিভাবক ও এলাকাবাসি বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে সহকারী শিক্ষা অফিসার আশীষ কুমার মহাজন এর সম্মুখে এই বিক্ষোভ করে এবং স্মারকরিপি প্রদান করে।

সরেজমিনে গিয়ে অভিভাবকদের থেকে জানা যায়, সাবেক বিলছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের নানান অনিয়মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় চক্ষুশূল হয়ে ওঠে প্রধান শিক্ষিকা নন্দিতা শ্রী দেব চৌধুরী। স্মারকরিপির সূত্রে জানা যায়, শিক্ষার মান উন্নয়নের লক্ষ্যে সহকারী শিক্ষকদের যথাসময়ে বিদ্যালয়ে উপস্থিতি নিশ্চিতকরণ, দাঁড়িয়ে পাঠদান, শ্রেণীকার্যক্রম চলাকালীন সময়ে ইন্টারনেট/ফেইসবুক ব্যবহারে বাধা দেওয়ায় ক্ষিপ্ত কতিপয় সহকারী শিক্ষকগণ ও এলাকার কিছু স্বার্থন্বেষী কু-চক্রী মহল ষড়যন্ত্রের কারণে সাবেক বিলছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা নন্দিতা শ্রী দেব চৌধুরী কে উদ্দেশ্য প্রনোদিত ভাবে হ্লাচাই পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বদলী করা হয়। এর প্রতিবাদে বিদ্যালয়ের অভিভাবক ও এলাকাবাসি বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের কাছে সদস্য মোস্তফা জামাল এর মাধ্যমে স্মারকলিপি প্রদান করে।

নূর আলম, জসিম, নুরনবী, আয়েশা, নুরজাহান সহ বিদ্যালয়ের দু’শতাধিক অভিভাবক স্ব-শরীরে প্রতিবেদকে জানায়, প্রধান শিক্ষিকা নন্দিতা শ্রী দেব চৌধুরী প্রায় ২ বছর যাবৎ অত্র বিদ্যালয়ে দায়িত্ব পালন করছে। উক্ত প্রধান শিক্ষক আসার পর থেকে বিদ্যালয়ের লেখাপড়ার মান অত্যান্ত ভাল হয়েছে। এই বদলী আদেশটি উদ্দেশ্য প্রনোদিত। অতিশীঘ্রই এই বদলী আদেশ বাতিল পূর্বক উক্ত প্রধান শিক্ষিকাকে পুনরায় বহাল করতে সংশ্লিষ্ট সকলের কাছে জোরালো আবেদন করেন।

এই বিষয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি সিং মং রাখাইন বলেন, প্রধান শিক্ষিকা নন্দিতা শ্রী দেব চৌধুরীর বিদ্যালয় পরিচালনা সন্তোষজনক।

লামা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার যতীন্দ্র মোহন মন্ডল বলেন, অভিভাবকদের বিক্ষোভের বিষয়টি জানতে পেরে আমি সহকারী শিক্ষা অফিসার আশীষ কুমার মহাজন কে বিদ্যালয়ে পাঠাই। বিদ্যালয়ে সকল অভিভাবক পূর্বের প্রধান শিক্ষিকা নন্দিতা শ্রী দেব চৌধুরী কে পুনবহাল করতে স্মারকলিপি প্রদান করেছে। আমরা পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা শিক্ষা অফিসারের কাছে সুপারিশ করব বিষয়টি পুন বিবেচনার জন্য। তাছাড়া বদলীর বিষয়ে আমরা উপজেলা শিক্ষা অফিস কিছু জানিনা।






মন্তব্য চালু নেই