মেইন ম্যেনু

ভোট কারচুপি, জালিয়াতি, জালভোট প্রদান, কেন্দ্র দখলের শংকা

লামায় বিএনপি’র সংবাদ সম্মেলন

লামা পৌরসভা নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আমির হোসেন ভোট কারচুপি, জালিয়াতি, জাল ভোট প্রদান, কেন্দ্র দখল, প্রচারণায় বাধা, ঝুকিপূর্ণ স্থানে কেন্দ্র পরিবর্তন, হুমকি সহ নানান অভিযোগ এনে ২৭ ডিসেম্বর রবিবার বিকাল ৩টায় নিজ বাসবভনে সংবাদ সম্মেলন করেছে।

লিখিত বক্তব্যে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আমির হোসেন বলেন, আজ বিশেষ মুহুর্তে লামা পৌরবাসীর শান্তি ও শৃঙ্খলার স্বার্থে এ সাংবাদিক সম্মেলন করতে যাচ্ছি। একটি চিহ্নিত মহল আমার বিরুদ্ধে শতাধিক মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করে আমাকে হয়রানি করেছে। আমি বিএনপির রাজনীতি করি আর এটাই আমার সবচেয়ে বড় অপরাধ। আমি বিএনপি ও ২০ দলীয় জোট কর্তৃক মনোনিত মেয়র প্রার্থী।

আমাকে নির্বাচন থেকে দুরে রাখার জন্য আওয়ামীলীগ অনেক চেষ্টা করেছে। আমার নির্বাচনী প্রচারনায় পদে পদে বাধা প্রদান করা হয়েছে। বিএনপি কর্মী ও সমর্থকদের বিভিন্ন ভাবে হুমকি ও ভয় ভীতি প্রদর্শন করা হচ্ছে। হামলা এবং মামলা ভয় দেখিয়ে ধানের শীষ সমর্থকদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। আমার পেছনে সন্ত্রাসী লেলিয়ে দিয়ে আমার উপর আক্রমনের প্রচেষ্টা অব্যহত রেখেছে।

নির্বাচনের দিন চকরিয়া ও মহেশখালী থেকে পেশাদার খুনি এবং সন্ত্রাসীদের দিয়ে ২নং ওয়ার্ডের নয়াপাড়া আদর্শ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ৬নং ওয়ার্ডের কলিঙ্গাবিল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র দখলের মাধ্যমে জাল ভোট প্রদানের পরিকল্পনা করা হয়েছে। বহিরাগত ও অপরিচিত সন্ত্রাসীগন রাতের বেলায় বর্তমানে পাশ্ববর্তী বিভিন্ন ইউনিয়নের বিভিন্ন জনের বাড়িতে অবস্থান করছে ।

আওয়ামীলীগ ভোটার বিহীন লামা পৌরসভার নির্বাচন করার জন্য ষড়যস্ত্র করছে। প্রশাসনকে তাদের ক্রিড়ানক হিসেবে ব্যবহার করছে। তারা লামা পৌরসভার বিএনপি তথা ধানের শীষ সমর্থক ভোটারদের ভোটকেন্দ্রের বাহিরে রাখতে চায়। আওয়ামীলীগ লামা পৌরসভার মেয়র পদের নির্বাচনের মধ্য দিয়ে বিএনপি’র ঘাটি হিসেবে পরিচিত লামা পৌরসভাকে আওয়ামীলীগের ঘাঁটি হিসেবে পরিনত করতে চায়।

বিএনপি’র ভোটারদের বিভ্রান্ত করার মানসে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী পোস্টার ও লিফলেটে দলীয় প্রধান হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি দেয়নি। তিনি আওয়ামী লীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী হলেও পৌরসভার ভোটারদের দলীয় পরিচয় গোপন করে। মুলত এর কারণ বিএনপি ভোটারদের অনুকম্পা লাভের আশা।

লামা পৌর নাগরিক যাতে করে ভোট কেন্দ্রে গমন করে নিজের ভোট নিজে প্রদান করতে পারে এই ব্যবস্থা টুকু করবেন প্রশাসন। সর্বপরী পৌরসভার ২ ও ৬ নং ওয়ার্ডে অধিকতর নিরাপত্তা সহ ৯টি কেন্দ্রেই ভোটাদের নিরাপত্তা জোরদার কারার জন্য আপনাদের (সাংবাদিক) মাধ্যমে আবেদন জানাচ্ছি। অদ্য ২৭ ডিসেম্বর বান্দরবান জেলা প্রশাসকের মহোদয়ের লামা সফরকালে উপরুক্ত অভিযোগ সমুহ মৌখিক ভাবে জানালে তিনি এ বিষয়ে আন্তরিকভাবে সাবিক সহোযোগীতার আশ্বাস প্রদান করেন।

লামা পৌরসভার ভোটারগন যাতে নিবিঘেœ ভোটকেন্দ্রে গমন করে নিজের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট প্রদান করতে পারে এ বিষয়ে আপনাদের সহযোগীতা কামনা করছি। এসময় লামা উপজেলার বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ, কর্মী ও কর্মরত সকল প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই