মেইন ম্যেনু

লাল কার্ড দেখানোয় রেফারিকে গুলি করে হত্যা!

গত সেপ্টেম্বরে ব্রাজিলে একটি ফুটবল ম্যাচে মাঠের মধ্যেই এক খেলোয়াড়কে পিস্তল উঁচিয়ে ভয় দেখিয়েছিলেন রেফারি। কিন্তু এবারের ঘটনা যে আরো ভয়াবহ। এবার ম্যাচ চলাকালীন রেফারিকেই গুলি করেছেন এক ফুটবলার! সেই রেফারি মারাও গেছেন।

ভয়াবহ এই ঘটনাটি ঘটেছে আর্জেন্তিনার কোর্দোবায় স্থানীয় দুটি ক্লাবের মধ্যকার এক ম্যাচে। গত রোববারের সে ম্যাচে প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়কে অন্যায়ভাবে ফাউল করায় এক ফুটবলারকে লাল কার্ড দেখিয়ে মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দিয়েছিলেন রেফারি। ওই ফুটবলার রিজার্ভ বেঞ্চে ফিরে দ্রুতই আবার মাঠে ঢুকে রেফারিকে লক্ষ্য করে গুলি চালাতে শুরু করেন।

পর পর তিনবার গুলি করেন তিনি। প্রথম গুলি করা হয় রেফারির মাথায়। তারপর গলায়। আর শেষ গুলিটি করা হয় বুকে। এ সময় একটি গুলি গিয়ে লাগে অন্য এক ফুটবলারের গায়ে। ওয়াল্টার জারাতে নামের যে খেলোয়াড়ের গায়ে গুলি লেগেছে তিনি এখন সুস্থ আছেন। হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে তার। তবে সিজার ফ্লোরেস নামে ৪৮ বছর বয়সি রেফারি মারা গেছেন।

কোর্দোবা পুলিশ জানিয়েছে, ওই ফুটবলারের ব্যাগপ্যাকেই ছিল পিস্তল। তিনি রিজার্ভ বেঞ্চে ফিরে ব্যাগ থেকে পিস্তল নিয়ে মাঠে ছুটে আসেন। ততক্ষণে আবার শুরু হয়ে গেছে খেলা। তার মধ্যেই রেফারিকে লক্ষ্য করে গুলি চালাতে শুরু করেন। মাঠেই লুটিয়ে পড়েন সিজার। হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

এখনো ওই ফুটবলারকে ধরতে পারেনি পুলিশ। কোর্দোবা পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘পুরো ঘটনাটাই ঘটেছে ম্যাচ চলার সময়। আমরা জানি না রেফারির সঙ্গে ঠিক কী হয়েছিল। কিন্তু ওই ফুটবলার এতটাই রেগে ছিল যার ফলে সে পিস্তল বের করে আনে এবং রেফারিকে গুলি করে।’

তথ্যসূত্র : মিরর ডটকম






মন্তব্য চালু নেই