মেইন ম্যেনু

“লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড” তৈরীতে ব্যর্থ হলে আবারও নির্বাচনের নামে প্রহসন হবে

ইউপি নির্বাচন ২০১৬-এ লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করতে না পারলে নির্বাচনের প্রহসনের নির্বাচনের প্রয়োজন নেই বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলনের মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ। আজ দুপুরে আইএবি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এক এক সভায় তিনি এ দাবি জানান। সভায় ৪ দফা দাবী পেশ করা হয়- রিটার্নিং অফিসার হিসেবে নিরপেক্ষ নির্বাচনী কর্মকর্তাদের নিয়োগ দেয়া, নির্বাচনের ১ সপ্তাহ আগে থেকে ফলাফল ঘোষণা পর্যন্ত ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতা দিয়ে সকল নির্বাচনী এলাকায় সেনা মোতায়েন করা, নির্বাচনকে সর্বমহলে বিতর্কমুক্ত ও গ্রহণযোগ্য করতে হলে “লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড” তৈরী করা ও যেহেতু দলীয়ভাবে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন হচ্ছে, সেহেতু জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ন্যায় বেতার ও বিটিভিতে দলীয় প্রধানের ভাষণ প্রচারের ব্যবস্থা করা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, সহকারী মহাসচিব মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, কেএম আতিকুর রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ুম, দফতর সম্পাদক মাওলানা লোকমান হোসাইন জাফরী, প্রিন্সিপাল মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ, এডভোকেট শেখ লুৎফুর রহমান, মু. বরকত উল্লাহ লতিফ প্রমুখ।

সভায় সন্ত্রাসী, দুর্নীতিবাজ, লুটেরা ও অযোগ্য প্রার্থীদের বর্জন করার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

নেতৃবৃন্দ বলেন, দলীয় ভিত্তিতে প্রথমবারের মতো নির্বাচন করার আইন সংশোধনের পূর্বে নির্বাচন কমিশনের উচিত ছিল সকল নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের সাথে সংলাপ করা, কিন্তু কমিশন এর ন্যূনতম প্রয়োজনও বোধ করেনি। সংশোধিত পৌর আইন অনুযায়ী ইউপি চেয়ারম্যান পদে রাজনৈতিকভাবে প্রার্থীরা প্রতিদ্বন্ধিতা করবে। দীর্ঘদিন রাজনৈতিক দলসমূহের কার্যক্রম নিয়ন্ত্রণ করার পর এখন প্রস্তুতির সময় না দিয়ে তড়িঘড়ি নির্বাচনের আয়োজন করা সরকারের কোন দূরভিসন্ধি কিনা তা নিয়ে জনমনে সন্দেহ দানা বাঁধছে।

এছাড়া অন্যান্য নির্বাচনের সময় প্রচারণার জন্য ১১ দিনসহ মনোনয়ন ফরম পুরনে যথেষ্ট সময় দেয়া হলেও এ নির্বাচনে অপ্রতুল সময় রাখা হয়েছে। সংশোধিত আইনে ১টি দল থেকে ১জনের অধিক প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার বিধান বাতিল করা হয়েছে। এর ফলে অনেক ইউপি চেয়ারম্যান বাছাইয়ের পর কোন দলের প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হলে দলের ১জন প্রতিদ্বন্ধিও থাকবে না, এতে বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় সরকারদলীয় প্রার্থীদের বিজয়ের পথ সুগম হবে বলে আমরা মনে করছি।
ইউপি নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোয়ন দিবেন মহাসচিব

ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মনোনয়নের ক্ষমতা ইসলামী আন্দোলনের মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদকে দেয়া হয়েছে। এ সংক্রান্ত তার অনুসাক্ষর সম্বলিত চিঠি ঢাকা নির্বাচন কমিশন কার্যালয়সহ সারাদেশে রিটার্নিং অফিসে পৌঁছে দেয়া হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই