মেইন ম্যেনু

ল্যাজার করলে ত্বকের ক্যান্সার হয় কিনা জেনে নিন

অনেক দিন ধরে লেজার নিয়ে কাজ করছি। রোগীরা প্রায়ই এসে বলেন, লেজার করবো না। ওষুধ দিয়ে চিকিত্সা করতে চাই। যারা লেজার করতে চান না অথবা যাদের লেজার দরকার নেই তাদের অবশ্য আমি ব্যক্তিগতভাবে কখনও লেজারে উদ্বুদ্ধ করতে চাই না। তবে অনেকের মধ্যে লেজার নিয়ে বেশ ভীতি রয়েছে। তাদের ধারণা লেজার করলে ক্যান্সার হয়। তাই লেজার করতে চান না।

এব্যাপারে সত্যি কথা বলতে, আমার খুব একটা ধারণা ছিল না। তবে সাধারণ জ্ঞান দিয়ে বুঝি লেজারে ক্যান্সারের ঝুঁকি তৈরি হওয়ার মত কোন কারণ থাকতে পারে না। তবে যুক্তরাষ্ট্রের স্কিন ক্যান্সার ফাউন্ডেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও নিউ ইয়র্ক ইউনিভার্সিটির ল্যানগুন মেডিক্যাল সেন্টারের ক্লিনিক্যাল প্রফেসর ড. স্যারনফ-এর মতে লেজার করলে স্কিন ক্যান্সার হয় এমন কোন তথ্য পাওয়া যায়নি। বরং এই বিশেষজ্ঞের অভিমত হচ্ছে, কিছু কিছু লেজার আছে যা দিয়ে প্রিক্যান্সারাস লেশন বা ক্যান্সারের পূর্ববর্তী সমস্যা চিকিত্সায় ব্যবহৃত হয়। পরোক্ষভাবে লেজার স্কিন ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়ক।

তবে ড. স্যারনফ মনে করেন সান ড্যামেজ বা সূর্যের আলোতে পুড়ে যাওয়া বা ক্ষতিগ্রস্ত স্কিন থেকে ত্বকে ব্রাউন স্পট হতে পারে। অনেকে এ ধরনের স্পটকে সান স্পট, এজ স্পট অথবা লিভার স্পট বলে থাকেন। শুধু তাই নয় সান ড্যামেজ থেকে ত্বকে প্রি-ক্যান্সারাস স্কেলি প্যাচ বা এক ধরনের খসখসে পুরু আবরণ তৈরি করে। যাকে বলা হয় সোলার বা অ্যাকটিনিক ক্যারাটোসিস। ড. স্যারনফের-এর অভিমত এখন অনেক ধরনের কার্যকর লেজার আছে যা সান ড্যামেজজনিত সমস্যার সমাধানে ভালো কাজ করে।

স্কিন ক্যান্সার নিয়ে দীর্ঘ গবেষণার অভিজ্ঞতা থেকে তিনি উল্লেখ করেছেন ত্বকের সঠিক পরিচর্যা করে স্কিন ক্যান্সার রোধ করা যায়। এখানে একজন অভিজ্ঞ চিকিত্সকের পরামর্শে কার্যকর সানব্লক ব্যবহার করার কথা বলা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই