মেইন ম্যেনু

শক্তিশালী সৌদির মুখোমুখি বাংলাদেশ

আগামী বছর ভারতে অনুষ্ঠিত হবে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপ। ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে কিছু গ্রুপের বাছাই পর্বের খেলা। আগামীকাল বুধবার থেকে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হবে ডি গ্রুপের খেলা। যেখানে স্বাগতিক বাংলাদেশ ছাড়াও অংশ নেবে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। চতুর্থ দল হিসাবে অংশ নেয়ার কথা থাকলেও নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছে পাকিস্তান। বুধবার গ্রুপের প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশের কিশোররা। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শুরু হওয়া ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে বাংলাদেশ টেলিভিশন ও ধারাবিবরণী দেবে বাংলাদেশ বেতার।

এগারটি গ্রুপে মোট ৪৫টি দল অংশ নিয়েছে বাছাই পর্বে। প্রতি গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ১১টি দল ও সেরা চার রানার্স আপ দল (১৫) অংশ নিয়ে মূল পর্বে। স্বাগতিক হিসাবে আগেই কোয়ালিফাই করেছে ভারত। তারপরও তারা খেলবে বাছাই পর্বে। ই গ্রুপে তারা যদি চ্যাম্পিয়ন কিংবা সেরা চার রানার্স আপের মধ্যে পড়ে, সে ক্ষেত্রে সেরা পঞ্চম রানার্স আপ দলটি অংশ নেবে চূড়ান্ত পর্বে।

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৬ দল এই মুহূর্তে বেশ চাঙ্গাভাবে রয়েছে। কিছুদিন আগে সিলেটে অনুষ্ঠিত সাফ ফুটবলে প্রথমবারের মতো শিরোপা জিতেছে ভারতকে হারিয়ে। এবার ঘরের মাঠে বাছাই পর্বে ভালো করে আগামী বছর এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপে অংশ নেয়ার জন্য পাখির চোখ করে আছে দেশের কিশোর ফুটবলাররা।
মঙ্গলবার বাফুফে ভবনে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হয়েছিল তিন দলের অধিনায়ক ও কোচ। সেখানে বাংলাদেশ কোচ সৈয়দ গোলাম জিলানী বলেছেন, ‘আমাদের দলটা ব্যালেন্স। সাফ জেতায় মানসিকভাবে সবাই অনেক শক্তিশালী। প্রতিপক্ষ দুটি দল আমাদের চেয়ে অনেক শক্তিশালী। তবে আমার ছেলেরাই প্রস্তুত আছে। চেষ্টা থাকবে টুর্নামেন্টে ভাল করার। বয়সভিত্তিক দলের মধ্যে পার্থক্য উনিশ-বিশ। সাফের মতো ভাল করতে পারলে ইতিবাচক ফলাফল আসবে। সবচেয়ে বড় কথা হলো ম্যাচটা আমাদের ঘরের মাঠ।’

দলের কৌশল প্রসঙ্গে জিলানি বলেন, ‘আমাদের রক্ষনভাগ ঠিক রেখেই আক্রমণে যেতে হবে। একসঙ্গে আক্রমণে গিয়ে আবার একসঙ্গে ডিফেন্সে নেমে আসতে হবে। আমার দলে অনেক ট্যালেন্ট খেলোয়াড় আছে, আশা করি ছেলেরা সেরাটা মেলে ধরবে।’
বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক শাওন বলেন, ‘র‌্যাংকিংয়ে তারা (সৌদি আরব) আমাদের চেয়ে অনেক এগিয়ে। দল হিসেবেও তারা অনেক শক্তিশালী। সাফ চ্যাম্পিয়ন আমরা, তাই চাপটা একটু থাকবে। সাফের মতো টিম স্পিরিট ধরে রাখতে চাই। ঘরের মাঠে বলে আমাদের হোম অ্যাডভান্টেজ থাকবে। চেষ্টা করব নিজেদের মেলে ধরতে।’

বাংলাদেশের সঙ্গে ম্যাচের আগে সৌদি কোচ মোহাম্মদ আল আবদালি সম্মানের চোখেই দেখছেন গ্রুপের অন্য দুই দলকে। তিনি বলেন, ‘গত তিন মাস ধরে আমরা প্রস্তুতি নিয়ে এসেছি। এর মধ্যে খেলেছি ওয়েস্ট এশিয়ান কাপ ও গালফ কাপ। বাংলাদেশ নিজ মাঠে খেলবে আর সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে আমাদের পরিচিত দীর্ঘ দিনের। কোনও ম্যাচই এখানে সহজ হবে না। আবহাওয়া নিয়ে আমাদের মাথাব্যথা নেই। এই আবহাওয়ায় আমরা অভ্যস্ত।’

অন্যদিকে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ সংযুক্ত আরব আমিরাতের কোচ আব্দুল্লাহ আল শাহীন বলেন, ‘আমরা গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। সৌদি আরবের সঙ্গে গত দুটি ম্যাচের একটিতে ৪-২ গোলে হেরেছি। আরেকটিতে জিতেছি ২-১ গোলে। তারা আমদের চেনা প্রতিপক্ষ। তবে বাংলাদেশকে নিয়ে কিছুই জানি না। উভয় দলকেই আমরা সম্মান করি এবং ভালো ফুটবল খেলে প্রতি ম্যাচেই জিততে চাই।’
আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর গ্রুপের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মোকাবেলা করবে স্বাগতিক বাংলাদেশ। গ্রুপের শেষ ম্যাচে ২০ সেপ্টেম্বর মুখোমুখি হবে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত।

ইতোমধ্যে টিকিটের দাম নির্ধারণ করেছে বাফুফে। গ্যালারির টিকেটের মূল্য ৩০টাকা এবং ভিআইপি ৫০ টাকা। স্কুল ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য আইডি কার্ড প্রদর্শন সাপেক্ষে গ্যালারীর ৫ নং গেইট উন্মুক্ত রাখা হবে।






মন্তব্য চালু নেই