মেইন ম্যেনু

শরণার্থীদের যৌনশিক্ষা দিচ্ছে জার্মানি

সিরিয়া, আফগানিস্তান ও ইরাকসহ কয়েকটি দেশ থেকে আসা মুসলমান শরণার্থীদের যৌনশিক্ষা দিচ্ছে জার্মানি। সরকারের তৈরি এ সংক্রান্ত একটি ওয়েবসাইটে যৌনাঙ্গ থেকে শুরু করে গর্ভধারণ, হস্তমৈথুন, যৌন সুখের মতো বিষয়গুলি চিত্রলিপিতে দেখানো হয়েছে৷

চলতি বছর বর্ষবরণ উৎসবে জার্মান নারীদের ওপর যৌন হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অভিযোগের তীর ওঠে শরণার্থীদের দিকে। এরপরই সুইমিংপুলসহ বেশ কিছু স্থানে বিকিনি পরিহিত নারীদের কাছে শরণার্থীদের জটলা না করতে সতর্ক করে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে সরকার শরণার্থীদের জার্মান সংস্কৃতি,ভাষা ও পশ্চিমা যৌননিয়ম শিক্ষা দেওয়ার উদ্যোগ নেয়। এর মধ্যে একজন জার্মান নারীকে কীভাবে প্রস্তাব দিতে হবে তাও অর্ন্তভূক্ত রয়েছে।

নতুন সরকারি ওয়েবসাইটটিতে আরবি, তুর্কি, ইংরেজি, জার্মানসহ মোট ১২টি ভাষায় যৌনতা বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য এবং চিত্রলিপি সংযুক্ত করা হয়েছে। মোট ছয়টি বিভাগে যৌনতা, যৌনমিলন, সম্ভোগের রকমফের, যৌনতা বিষয়ক অধিকারের কথা তুলে ধরা হয়েছে ৷ এর মধ্যে‘সেক্স’ বিভাগটিতে কুমারিত্ব, যৌনাসন এবং বিভিন্ন যৌন সমস্যার সমাধান চিত্রলিপির মাধ্যমে ব্যাখা করা হয়েছে৷ এছাড়া যৌনবাহিত রোগ এড়ানোর উপায়, পরিবার পরিকল্পনা, সন্তান জন্মদানের পুরো প্রক্রিয়া এবং গর্ভপাতের বিষয়টিও এখানে সংযুক্ত করা হয়েছে।

সরকারের এ উদ্যোগের সমালোচনাও করেছেন অনেকে। কেউ কেউ একে সরকারি অর্থের অপচয় হিসেবে মন্তব্য করেছেন।

শরণার্থীদের নিয়ে কাজ করছে এমন একটি সংগঠন হচ্ছে ইসলামিক রিলিফ জার্মানি। এর মুখপাত্র নুরি কোসেলি বলেন, ‘এটা মানুষের জৈবিক চাহিদা। তবে লোকজনের এরচেয়েও বড় সমস্যা রয়েছে। শরণার্থীদের অধিকাংশই দীর্ঘসময় জরুরি আশ্রয় শিবিরে রয়েছে, যেখানে ব্যক্তিগত কোনো কক্ষই নেই। তাদের সঙ্গে এ ধরণের একটি বিষয় নিয়ে কাজ করলে বিপরীত প্রতিক্রিয়াও পাওয়ার আশংকা রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই