মেইন ম্যেনু

শরীরের প্রতি যে মারাত্মক অবহেলার কারণে সারাক্ষণ ক্লান্ত থাকেন আপনি

ঘুম থেকে ওঠার পর থেকে ঘুমাতে যাওয়ার আগ পর্যন্ত কি আপনি বেশীরভাগ সময় খুবই ক্লান্ত থাকেন? সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরও শরীর একেবারেই ঝরঝরে না লাগা, বরং শরীরের আরও বেশী বিশ্রাম বিশ্রাম খোঁজা খুব বেশী ভালো লক্ষণ নয়। এছাড়াও দুপুরে, বিকেলে এবং সন্ধ্যার আলস্যে কি খুবই ক্লান্ত লাগে নিজেকে? তাহলে জেনে রাখুন আপনি নিজের শরীরের প্রতি খুবই অবহেলা করছেন। এবং এই মারাত্মক অবহেলার কারণেই সারাটি ক্ষণ ক্লান্ত থাকেন আপনি। আপনার কর্মক্ষমতা দিনে দিনে হ্রাস পাচ্ছে এবং এই দীর্ঘমেয়াদী ক্লান্তি প্রভাব ফেলছে আপনার মস্তিস্কেও। সুরতাং সাবধান হয়ে যান। জেনে নিন কোন কোন মারাত্মক অবহেলার কারণে সারাক্ষণ ক্লান্তিতে ভোগার সমস্যায় পড়েছেন আপনি। বড় কোনো শারীরিক সমস্যা শুরু হওয়ার আগেই আজ থেকে বন্ধ করুন এইসকল অবহেলা।

১) আপনি পানি পান করেন বেশ কম

আপনি কম পান করার ফলে আপনার দেহ পানিশূন্যতায় ভুগতে থাকে যার ফলে দেহের অক্সিজেনও কমে আসে। অক্সিজেন কম হওয়ার কারণে দেহের পেশি ও কোষগুলো ক্লান্ত হয়ে পড়ে যার ফলে আপনি ক্লান্তি অনুভব করতে থাকেন। পুরো দিনে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন এবং পানি সমৃদ্ধ ফলমূল খান।

২) আপনি আয়রনের ঘাটতিতে ভুগছেন

আয়রনের অভাবে সবসময় ক্লান্তি ও দুর্বলতা অনুভব করা এবং কাজে একেবারেই মনোযোগ দিতে না পারার সমস্যা দেখা দেয়। আয়রনের অভাব পুরো দেহে সঠিকভাবে অক্সিজেনের সঞ্চালনে বাঁধা সৃষ্টি করে যার ফলে এই সমস্যা দেখা দেয়। এছাড়াও অয়ায়রনের অভাবের অর্থ রক্তস্বল্পতা যার কারণেও অনেকে ক্লান্তি অনুভব করতে থাকেন। তাই দেহের আয়রনের ঘাটতি পূরণ করুন সমস্যা মারাত্মক হওয়ার আগেই।

৩) আপনি সবসময় পারেফেক্ট হতে চান

মানুষ যখন অনেক বেশী বিষণ্ণ এবং ফ্রাস্ট্রেটেড হয়ে পড়েন তখন তিনি শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে যান এবং ক্লান্তি অনুভব করতে থাকেন। আপনার প্রতিটি কাজে সবসময় পারফেক্ট হওয়ার আকাঙ্ক্ষা একেবারেই পূরণীয় নয়। এটি বাস্তবসম্মত নয়। যখন আপনি নিজেকে পারফেক্ট করতে পারছেন না তখনই আপনার পুরো দেহ-মন জুড়ে ভর করছে দুর্বলতা। তাই বাস্তব আশা করুন, ভালো ফল পাবেন।

৪) আপনি সকালের নাস্তা বাদ দেন

তাড়াহুড়ো বা ওজন কমানোর আশায় অনেকেই সকালের নাস্তা বাদ দিয়ে ফেলেন। কিন্তু সারারাত না খাওয়া দেহ সকালে এনার্জির জন্য প্রথমেই সকালের নাস্তা খোঁজে যা আপনি নিজের দেহকে দিতে পারছেন না। তখন আপনার দেহ ক্লান্ত হতে থাকে এমনকি এরপর আপনি সঠিক পরিমাণে খাবার খেলেও সেই এনার্জি কখনোই পাবেন না যতোটা আপনি সকালের নাস্তা করলে পেতে পারতেন।

৫) আপনি অস্বাস্থ্যকর খাবার খান

ক্ষুধার সময় হাতের কাছে যা পেলেন তাই খাওয়া হয়, বিশেষ করে জাংক ফুড ধরণের খাবার? তাহলে জেনে রাখুন আপনার অতিরিক্ত ক্লান্তির প্রধান কারণ হচ্ছে এই অভ্যাসটি। কারণ এইসকল অস্বাস্থ্যকর খাবারে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে চিনি যা হুট করে এনার্জি বাড়িয়ে দিলেও খুবই দ্রুত তা শেষ হয়ে যায় এবং এইসকল খাবারের গ্লাইসেমিক ইনডেক্স দেহের স্বাভাবিকতা ধীরে ধীরে নষ্ট করে দেয়।

৬) না বলতে না পারা

শুনতে খুব অদ্ভুত শোনালেও আপনার সারাক্ষণ ক্লান্ত অনুভবের পেছনের কারণ এটি। যখন আপনি কাউকে কোনো কাজের জন্য না বলতে পারছেন তখন তখন আপনি নিজের ইচ্ছার বিরুদ্ধে হলেও কাজটি করতে যাচ্ছেন। এই কারণে নিজের মনের সাথে যুদ্ধ করে নিজেই ক্লান্ত হয়ে পড়ছেন আপনি যা হয়তো আপনি বুঝতেই পারছেন না।

৭) আপনি অতিরিক্ত ক্যাফেইন গ্রহণ করেন

চা/কফি আপনাকে সজাগ রাখে এবং এনার্জি প্রদান করে তাই আপনি দিনভর যখন ইচ্ছে চা বা কফির মগে চুমুক দিয়ে থাকেন? তাহলে জেনে রাখুন আপনি অনেক বড় ভুল কাজ করছেন। তাৎক্ষণিক ভাবে এনার্জি বাড়ালেও চা/কফির ক্যাফেইন অতিরিক্ত গ্রহণ করার ফলে আপনি পানিশূন্যতায় ভোগেন এবং অক্সিজেন সরবরাহে সমস্যার কারণে ক্লান্ত হয়ে পড়েন। এছাড়াও অতিরিক্ত চা/কফি পানের কারণে আপনার দেহের স্বাভাবিক বিশ্রামের সাইকেলটি নষ্ট হয়ে যায়। একারণেও আপনি নিজেকে ক্লান্ত অনুভব করেন।

সূত্র: ideadigezt.com






মন্তব্য চালু নেই