মেইন ম্যেনু

শরীয়তপুর ভেদরগঞ্জে ফলদ বৃক্ষমেলা ২০১৬ অনুষ্ঠিত

রাজিব হোসেন রাজন, শরীয়তপুর প্রতিনিধি : শরীয়তপুর জেলা ভেদরগঞ্জ উপজেলায় “অর্থ পুষ্টি স্বাস্থ্য চান দেশি ফল বেশি খান” ও জীবিকার জন্য গাছ জীবনের জন্য গাছ, এই শ্লোগানকে সামনে রেখে কৃষি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ফলদ বৃক্ষ রোপণ পক্ষ ও জাতীয় ফল প্রদর্শনী ২০১৬ এর আযয়োজন করা হয়েছে।ভেদরগঞ্জ উপজেলা চত্বরে ২৯ হতে ৩১ আগস্ট তিন দিনব্যাপী জাতীয় ফল প্রদর্শনী শুরু হয়েছে।

ভেদরগঞ্জ উপেজলার নির্বাহী অফিসার সোহেল আহম্মেদ এর সভাপতিত্বে ও উপজেলা কৃষি অফিসার শাহ মুহাম্মাদ শাখাওয়াত হোসেন এর উপস্থাপনায় ফলদ বৃক্ষমেলা উদ্বোধন করেন শরীয়তপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিঃ উপপরিচালক মো.মছির উদ্দিন
বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তাক আহম্মেদ মাসুম বালা, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আকলিমা আক্তার লিপি।
এদিন অনুষ্ঠানের শুরুতে সকাল ৯টা ভেদরগঞ্জ উপজেলা চত্বর হতে প্রধান প্রধান মহাসড়কে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালির আযয়োজন করা হয়। র‌্যালি শেষে প্রধান অতিথি ফলদ বৃক্ষ রোপণ পক্ষ ও জাতীয় ফল প্রদর্শনী ২০১৬ এর উদ্বোধন করেন এবং স্টল পরিদর্শন করেন।
আযয়োজিত সেমিনারের প্রধান অতিথি শরীয়তপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিঃ উপপরিচালক মো.মছির উদ্দিন বলেন, সরকার সপ্তম-পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় নিয়েছে পণ্যের বহুমুখীকরণ উদ্যোগ সফলভাবে বাস্তবায়ন হবে। এজন্য সরকার নন-ট্রাডিশনাল পণ্যের প্রক্রিয়াজাতকরণ ও রফতানির ওপর জোর দিচ্ছে। এ লক্ষ্যে ইতিমধ্যে কৃষিপণ্যের জন্য ২০ শতাংশ নগদ সহায়তা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিছে সরকার। পাটপণ্যকে অর্ন্তভুক্ত করা হয়েছে কৃষিপণ্যের তালিকায়। আর চাল আমদানি নিরুৎসাহিত করতে ২৫ শতাংশ হারে আমদানি শুল্ক আরোপ করা হয়েছে। কারণ, বাংলাদেশই এখন বিভিন্ন দেশে চাল রফতানি করে। এবার নজর দিতে হবে অপ্রচলিত কৃষিপণ্যের প্রক্রিয়াজতকরণ শিল্পের ওপর। কৃৃষিবিদ বলেন, ১৯৭২-৭৩ সালে আমাদের রফতানির তালিকায় ছিলো মাত্র ২৫টি পণ্য। যা রফতানি হতো ৬৮ দেশে এবং আয় হতো মাত্র ৩৪৮ মিলিয়ন ডলার। কিন্তু এখন আমরা রফতানি করি ১৯৬টি দেশে। চলতি বছরে রফতানির যে লক্ষ্যমাত্রা (৩৩.৫ বিলিয়ন ডলার) ধরা হয়েছে তা ছাড়িয়ে যাবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, কৃষি তথ্য সার্ভিস, বন বিভাগ ছাড়াও সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ১৫টি স্টল বসেছে প্রদর্শনীতে। মেলায় প্রায় ১৩০ প্রজাতির ফলের একাধিক জাত প্রদর্শিত হচ্ছে। মেলা প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। মেলায় আগত দর্শণার্থীরা রাসায়নিকমুক্ত বিভিন্ন জাতের ফল ক্রয় করতে পারবেন। ফলদ বৃক্ষ রোপণ পক্ষ ও জাতীয় ফল প্রদর্শনী ২০১৬ উপলক্ষে উপজেলা নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। এ সবের মধ্যে রয়েছে বিনামূল্যে ফলের চারা,কলম বিতরণ, সেমিনার, কর্মশালা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান প্রভৃতি।






মন্তব্য চালু নেই