মেইন ম্যেনু

শর্করা জাতীয় যে খাবারগুলো আপনার IBS সমস্যা বাড়ায়

IBS যাদের থাকে তাদের সারাবছরই ভুগতে হয় পেটের সমস্যায়। খুব সাবধানে তাদের খাওয়া দাওয়া করতে হয়, নয়তো দেখা দেয় কোষ্ঠকাঠিন্য অথবা ডায়রিয়া। IBS ঠিক রোগ নয়, মূলত একটি জটিলতা যা সহজেই পেট খারাপ করতে পারে। কিছু খাবার বাদ দিতে বলা হয় IBS এ ভোগা মানুষদের। তার বাইরেও এমন কিছু খাবার আছে যা আপাতদৃষ্টিতে নিরীহ মনে হলেও আপনার IBS এর উপসর্গ বাড়িয়ে দিতে পারে। এই খাবারগুলো পেট ফাঁপা ও পেটে গ্যাস হবার জন্য দায়ী। এই খাবারগুলোর যে কোন একটি বা একাধিক বাদ দিলে আপনি অনেকটা আরাম পেতে পারেন। চলুন দেখে নিই এমনই কিছু শর্করাজাতীয় খাবারের ব্যাপারে।

১) ফ্রুক্টোজ
ফ্রুক্টোজ হলো এমন একটি প্রাকৃতিক চিনি যা সব ফলেই থাকে। কিন্তু তাই বলে আপনি ফল খাওয়া বাদ দেবেন? অবশ্যই না। সমস্যা তৈরি করে সেসব ফল যাতে গ্লুকোজের চাইতে বেশি ফ্রুক্টোজ থাকে। আপেল, তরমুজ এবং দোকানের বিভিন্ন ফলের জুসে বেশি মাত্রায় ফ্রুক্টোজ থাকে। এগুলো না খেয়ে বরং কলা এবং আঙ্গুরের মতো ফলগুলো খান।

২) ল্যক্টোজ
দুধে থাকা শর্করা হলো ল্যাক্টোজ। এটা শুনেই দুধ পান করা বাদ দিয়ে দেবেন না। ল্যাক্টোজ ইনটলারেন্ট যারা, তারাও দৈনিক ৪ গ্রাম ল্যাক্টোজ খেতে পারেন কোনো সমস্যা ছাড়াই (এক গ্লাস দুধে ১২-১৬ গ্রাম ল্যাক্টোজ থাকে)। শক্ত ধরণের পনির দুধ থেকে তৈরি হলেও এতে ল্যাক্টোজ বলতে গেলে থাকে না। আপনি যদি দুধ বা আইসক্রিম খেতে চান তাহলে ল্যাকটেজ এনজাইম ট্যাবলেট খেতে পারেন তার সাথে, তবে অবশ্যই ডাক্তারের সাথে কথা বলে তারপর।

৩) পলিঅল
সরবিটল, ম্যানিটল, জাইলিটল, মাল্টিটল এগুলো হলো সুগার অ্যালকোহল। সরবিটল এবং ম্যানিটল থাকে পিচ ফল এবং ফুলকপিতে। তবে জাইলিটল এবং মাল্টিটল প্রক্রিয়াজাত খাবারে যোগ করা হয়। পলিঅলযুক্ত খাবার পেট ফাঁপা এবং পেটে গ্যাস হবার কারণ হতে পারে।

৪) ফ্রুক্টান
ফ্রুক্টান সমৃদ্ধ খাবার আসলে সবার পেটেই সমস্যা তৈরি করে তবে কারও ক্ষেত্রে সমস্যা বেশি হয়, কেউ আবার ভ্রুক্ষেপ ছাড়াই অনেকটা খেয়ে ফেলতে পারেন। ফ্রুক্টান বেশ পরিমাণে থাকে পিঁয়াজ এবং রসুনে। এর পাশাপাশি গম, বার্লি এবং রাইতেও থাকে। সয়া সসে অল্প পরিমাণে ফ্রুক্টান থাকে যা সাধারণত কারোই সমস্যার কারণ হয় না।

৫) গ্যালাক্টো অলিগোস্যাকারাইড
এগুলো থাকে ডাল, সয়াবিন এবং মটর জাতীয় খাবারে। ফলে যারা ভেজিটেরিয়ান তাদের জন্য এই জাতীয় খাবার বাদ দেওয়াটা বেশ কষ্টই হবে বই কি। এদেরকে যদি ডায়েট থেকে বাদ দিতে চান তাহলে এদের বদলে খেতে পারেন ডিম, টোফু এবং বাদাম।






মন্তব্য চালু নেই