মেইন ম্যেনু

শহিদ কাপুরকে কুকুরের নামে ডাকতেন মীরা!

গ্ল্যামকন্যা নয়, দিল্লির এলএসআর কলেজের ছাত্রী মীরা রাজপুত। রাধাস্বামী সৎসঙ্গ বিলাসে একনিষ্ঠ ভক্ত দুজনেই বাবা। সেই সূত্রেই আলাপ পরিচয়। মীরাকে নিয়ে প্রথমবার মুখ খুললেন শহিদ। প্রথম দেখা থেকে বিয়েতে মীরার দাবি সব জানালেন ‘টমি’ সিং।

মীরার সঙ্গে শহিদের প্রথম দেখা হয় দিল্লিতে মীরাদের ফার্ম-হাউসে। তখন ‘উড়তা পাঞ্জাব’র শুটিং চলছিল। শহিদের কথায়, পনিটেল, ট্র্যাক প্যান্ট, অদ্ভূত জুতো টমি সিং লুকে গাড়ি থেকে ফার্ম হাউসের সামনে নামি। আমাকে দেখে মীরার বাবা অবাক। সবার মধ্যে চলছে চাপা ফিসফিসানি। তবে মীরারই ডিসিশন ছিল আমাকে বিয়ে করার। আমার মনে আছে আমি মীরাকে জানি, এটা আমার আগামী ছবি ‘উড়তা পাঞ্জব’ এ টমি সিংয়ের লুক। একথা শুনে হাসতে হাসতে মীরা প্রশ্ন করেছিল, “টমি আবার কারো নাম হয় নাকি? টমি তো কুকুরের নাম’। শুধু তাই নয়! মীরা ওর ফোনে আমার নাম টমি লিখে সেভ করে রাখে। আমি ফোন করলেই টমি সিং কলিং রিং টোন বাজত।

তবে ‘উড়তা পাঞ্জাব’ আমার যে লাল চুল ছিল ওটা নিয়ে আমি বিয়ে করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু মীরার দাবি ছিল, ছবির প্রয়োজনে আমি চুল লাল করতেই পারি কিন্তু বিয়ের আসরে আমাকে ডিসেন্ট দেখা চাই। অগত্যা বিয়ের অ্যালবাম দেখে আমার ছেলে, মেয়েদের আর বলা হল না ‘কি কুল ছিল আমার বাবা’।

এখন মীরা-শহিদের জীবনে আসতে চলেছে নতুন অতিথি। মা হতে চলেছে মীরা। মীরার এমন সময় সবসময় কাছাকাছি থাকছেন শহিদ। স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, তিনি নাকি শেষ মাসে কাজ থেকে ছুটিও নিয়ে নেবেন। প্রতিটা মুহূর্ত তিনি মীরার সঙ্গে থাকতে চান। সেই সঙ্গে শাহিদ বলেন, “তারকা সন্তানদের একটা অভিযোগ সবসময় থাকে, তারা নাকি ছেলেবেলায় বাবা-মায়ের সঙ্গ তেমন পায় না। কিন্তু আমি আমার সন্তানকে সময় দিতে চাই”।

কিছুদিনের মধ্যেই মুক্তি পেতে চলেছে শহিদের ‘উড়তা পাঞ্জাব’ ছবি। যেখানে নেশাগ্রস্থ এক রকস্টারের ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখা যাবে তাকে। বলিউড পাড়ার খবর, টমি সিং নাকি হানি সিংয়ের অনুকরণ।

তবে এসব ছাড়িয়ে সব থেকে বড় খবর হল, এই ছবিতে একসঙ্গে ফিরছেন শহিদ কাপুর এবং কারিনা কাপুর জুটি। যদিও শহিদের বিপরীতে রয়েছেন আলিয়া। কিন্তু শহিদ-কারিনা একসঙ্গে এখবরেই ফ্যানদের মধ্যে রয়েছে উত্তেজনা।






মন্তব্য চালু নেই