মেইন ম্যেনু

শাকিবের ওপর হামলায় মুখ খুললেন অমিত হাসান

শিল্পী সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে ৫ মে (শুক্রবার)। ওইদিন রাতে নির্বাচনী ফলাফল দিতে দেরি হওয়ায় মধ্যরাতে ভোট গণনাকক্ষে প্রবেশ করেন সমিতির ‘বিদায়ী সভাপতি’ শাকিব খান। এরপর রাতের আঁধারে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এই নায়ক ‘হামলার শিকার’ হন।

বিষয়টি নিয়ে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অনেকেই ভিন্ন ভিন্ন মত পোষণ করছেন। কেউবা শাকিবের ওপর হামলায় ধিক্কার জানিয়েছেন। সেই তালিকায় যোগ হয়েছেন অমিত হাসান। তিনি শাকিবের দীর্ঘদিনের সহকর্মী। তাই তার ওপর হামলার বিষয়টি নিয়ে মুখ খুললেন জনপ্রিয় অভিনেতা।

সোমবার সকালে নিজের ফেসবুকে এক পোস্টে অমিত হাসান লেখেন, ‘নির্বাচনে জয় পরাজয় আছেই। এটা নিয়ে কোরনা কথা নেই। তবে কার ইশারায় শাকিব খানের ওপর হামলা হলো তা বের করতে হবে। এবং কারা হামলা করেছিল।’

অমিত হাসান জানান, ‘নির্বাচন কোনো বিষয় নয়। এতে হার-জিৎ থাকবেই। শিল্পীরা (ভোটার) আমাকে ভোট দেয়নি তাই আমি পাশ করিনি। এ নিয়ে আমার কোন আক্ষেভ নেই। কিন্তু শুক্রবার রাতে আমাদের ‘দেশসেরা নায়ক’র ওপর যে হামলা চালানো হয়েছে তা নিয়ে চুপ করে থাকা যায় না।’

অমিত হাসান বলেন, ‘শাকিব খান এদেশের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির জন্য প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন। একটা সময় শাকিব একাই ধরে রেখেছিলেন গোটা চলচ্চিত্রের। তার সাথে এমন আচরণ করা উচিত হয়নি। শুধু শাকিব নয়, ছোট-বড় কোনো শিল্পীর সঙ্গে এমন আচারণ করা উচিত নয়।’

শাকিব খানের ওপর হামলাকারীদের ‘ছাড় দেয়া হবে না’ উল্লেখ্য করে তিনি বলেন, ‘ইতোমধ্যে কারা ওই রাতে শাকিবেরওপর হামলা করে তা ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে। এফডিসি কর্তৃপক্ষ সিসি টিভির ফুটেজ চেক করছেন। দ্রুত সবকিছু জানা যাবে।’

অমিত হাসান বলেন, ‘হামলাকারী যে বা যারাই হোক না কেন এমন জঘন্য অপরাধ থেকে কেউ ‘রেহাই পাবে না’।’

শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে পরাজিত হয়েছেন অমিত হাসান। তাকে পরাজিত করে নতুন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন জায়েদ খান।






মন্তব্য চালু নেই