মেইন ম্যেনু

শাকিবের নিষেধ সত্ত্বেও অভিনয়ে ফিরছেন অপু?

‘আমারতো শাকিব-অপুর সাথে একটা ছবি রানিং আছেই। শাকিবতো এখন হুট করে এটা বলতে পারে না যে অপুকে আর সিনেমা করতে দিবে না। সে সুপারস্টার হতে পারে, কিন্তু সে কিভাবে এটা বলতে পারে যে একজন নায়িকা আর সিনেমা করবে না। ধরুন আমার সিনেমাতে প্রযোজক কোটি টাকা লগ্নি করছে, এখন যদি সিনেমাটা শেষ করতে না পারি তাহলে এই ক্ষতি পূরণ কে দেবে? সেতো শুধু আমার একটা সিনেমাই না, অপুর সঙ্গে অন্তত আরো কয়েকজনের এমন আট দশটা সিনেমার কাজ বাকি। সব প্রযোজকের টাকা কি শাকিব এখন ফেরৎ দিতে পারবে?’

-অপুকে আর অভিনয় করতে না দেয়ার সিদ্ধান্তে এভাবেই সোনালীনিউজকে কথাগুলো বলছিলেন দেশের প্রখ্যাত নির্মাতা মনতাজুর রহমান আকবর। আর এমন নির্মাতাদের কথা ভেবেই এবার শোনা যাচ্ছে ফের অভিনয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অপু বিশ্বাস।

সম্প্রতি শাকিব খানের সঙ্গে প্রেম বিয়ে ও সন্তান জন্মের বিষয়টি একটি টেলিভিশন লাইভে এসে ফাঁস করে দেন অপু বিশ্বাস। আর এরপরেই শাকিব-অপুর মধ্যে মনমালিন্যও শুরু হয়। কিন্তু সন্তানের কথা ভেবে আর মিডিয়ার চাপে অপুর সব আর্জি মেনে নেন শাকিব। কিন্তু পাল্টা অপুকেও আর সিনেমায় অভিনয় করতে দিবেন না বলে ঘোষণা দেন এই চিত্রাভিনেতা।

কিন্তু শাকিবের এমন সিদ্ধান্তের পর কিছুটা চটে যান শাকিব-অপু জুটিকে নিয়ে অসম্পূর্ণ সিনেমা নির্মাতারা। অন্তত পাঁচ থেকে আটটি সিনেমার শ্যুটিং বছর দুয়েক ধরে আটকে আছে বলেও অভিযোগ পাওয়া যায়। মাঝখানে অপুর উধাও হয়ে যাওয়ায় এমন বিপাকে পড়ে নির্মাতারা। তারা এখন আর্থিকভাবে লোকসানের কথা তুলছেন। শুধু তাই না অসম্পূর্ণ সিনেমাগুলো করতে না পারলে প্রযোজকদের কাছেও ভরসা হারানোর অভিযোগ করেন নির্মাতারা।

আর এসব কথা ভেবেই নাকি অপু বিশ্বাস সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, আটকে থাকা সিনেমাগুলোর অন্তত শ্যুটিং শেষ করবেন তিনি। আর সেজন্য এখন শরীর ফিট করতে প্রতিনিয়ত কঠোর পরিশ্রম করছেন। মাস দুয়েকের মধ্যে ফিট হয়ে পুনরায় সিনেমায় ফেরার কথাও জানান এই নায়িকা। আর ফিরেই প্রথমে রাজনীতি, পাঙ্কুজামাই, মাই ডার্লিং, মা এবং ভালবাসা ২০১৭ নামের সিনেমাগুলোতে কাজ শুরু করে দিবেন।

অপুর এমন সিদ্ধান্ত একান্তই ব্যক্তিগত। এ বিষয়ে স্বামী শাকিব খান এখন পর্যন্ত মুখ খুলেননি। বর্তমানে তিনি চিত্রনায়িকা বুবলির সঙ্গে শামিম আহমেদ রনির পরিচালনায় আলোচিত সিনেমা ‘রংবাজ’-এর শ্যুটিং নিয়ে ব্যস্ত আছেন।






মন্তব্য চালু নেই