মেইন ম্যেনু

শাড়ি পরার সময় যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখা জরুরি

শাড়ি ছাড়া কী বাঙালি নারীকে মানায়? না। শাড়িতে প্রত্যেক মেয়েকে সুন্দরী দেখায়। কিন্তু মা-খালাদের যুগ আর নেই। যে শাড়ি পরে ঘোরাঘুরি করতে পারবে। মডার্ন জামাকাপড় পরে অভ্যস্ত আজকালকার অধিকাংশ মেয়েদের শাড়ি সামলাতে হিমশিম খেতে হয়। এই বুঝি শাড়ি আলগা হয়ে যায়, বা পায়ে যদি জড়িয়ে যায়! তবে তো সব শেষ। শাড়ি পরতে ভালো লাগলেও এই ভয়ে অনেকে শাড়ির ধারেকাছে ঘেঁষতে চায় না। কিন্তু তা বলে কি শাড়ি পরবেন না! শাড়ি পরার পর এই বিষয়গুলি মাথায় রাখলেই কোনও চিন্তা থাকবে না-

১. প্রথমে শাড়ি শক্ত করে বেঁধে নিতে হবে কোমরে। তারপর শাড়ি পরে যতই ঘোরাঘুরি করুন না কেন, শাড়ি খুলে যাওয়ার কোনও ভয় থাকবে না।

২. শাড়ি খুব নিচু করে আবার খুব উঁচু করে না পরাই ভালো। নয়তো একেবারেই ভালো দেখাবে না।

৩. সুন্দর দেখে শাড়ি পরলেই হবে না। তার সঙ্গে সঠিক ব্লাউজ়টাও বেছে নিতে। তার মাপটাও ঠিকঠাক দেখে নেওয়া জরুরি।

৪. শাড়ি সামলাতে গিয়ে কোনও কিছুর হুঁশ থাকে না। কখনও ব্রার স্ট্রেপ বেরিয়ে যায়। এমন অস্বস্তিকর পরিস্থিতি এড়াতে ব্লাউজ়ের সঙ্গে তা ভালো করে আটকে নিন।

৫. শাড়ি যে আপনি পরতে অভ্যস্ত নন এবং ঠিকঠাক ক্যারি করতে পারেন না, এমনটা যেনও অন্যরা না ভাবে। তাই যে ভাবেই শাড়ি পরুন না তা ঠিক ক্যারি করুন।

৬. শাড়ি পরে দুর্ঘটনা এড়াতে সঠিক জুতো বেছে নেওয়া প্রয়োজন। নয়তো অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে পরতে পারেন।

৭. শাড়ি সামলানো এমনিতেই চাপের ব্যাপার, বাড়তি চাপ আর না নেওয়ায় ভালো। সেইমত বেছে নিন হ্যান্ড ব্যাগ।

৮. শাড়ি পরে এমনিতেই সব মেয়েদের সুন্দর দেখায়। তাই মুখের হালকা মেকআপ যথেষ্ট।

৯. শাড়ির সঙ্গে যে কোনও গয়না বেশ মানায়। কিন্তু তা যেন মানানসই হয়। নয়তো হিতে বিপরীত হতে পারে।

১০. শাড়ি পরে বার বার টয়লেট যাওয়া খুবই চাপের বিষয়। আবার শাড়ি ঠিক করতে হিমশিম খেতে হয়। তাই শাড়ি পরার আগে যাবতীয় কাজ সেরে নেওয়ায় ভালো।






মন্তব্য চালু নেই