মেইন ম্যেনু

শাহরুখের শুটিং সেটে হিন্দু পরিষদের কাণ্ড

ভারতে ফের অসহিষ্ণুতার শিকার হয়েছেন ‘বলিউড কিং’ শাহরুখ খান। বুধবার গুজরাটের ভুজ শহরে পরবর্তী ছবি ‘রাইস’-এর শুটিং করার সময় এ অসহিষ্ণুতার শিকার হন তিনি। বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সদস্যরা সেখানে এসে শাহরুখের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ শুরু করেন।

গত মঙ্গলবার বিশ্ব হিন্দু পরিষদের কিছু নেতা-কর্মী ভুজের জেলা কর্মকর্তাদের কাছে গিয়ে একটি স্মারকলিপি দেন। তাদের দাবি, ‘রাইস’-এর শুটিংয়ের অনুমতি প্রত্যাহার করতে হবে। বুধবার তারা শুটিংস্থলে গিয়ে প্রতিবাদ করতে থাকেন। তারা শাহরুখের বিরুদ্ধে স্লোগান দেন এবং তার কিছু পোস্টার ছিঁড়ে ফেলেন ও আগুনে পোড়ান।

শাহরুখ খান এর আগে অসহিষ্ণুতা প্রসঙ্গে বলেছিলেন, ভারতের দেশপ্রেমিক হিসেবে ধর্মনিরপেক্ষ না হওয়াটাই সবচেয়ে বড় অপরাধ। ভারতে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা বেড়ে গেছে। এমনটি চলতে থাকলে তিনি তার রাষ্ট্রীয় পদক ‘পদ্মশ্রী’ ফেরত দেবেন।

তার এমন বক্তব্যে ভারতের কট্টরপন্থি হিন্দুরা ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তীব্র প্রতিক্রিয়া আসতে শুরু করলে শাহরুখ নিজের মন্তব্য নিয়ে বলেন, তার কথা ভুলভাবে উপস্থাপিত হচ্ছে। তার কথার মানে কখনোই এই নয় যে, ভারত অসহিষ্ণু দেশ।

গুজরাট বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রণছোড় ভরদ্বাজ বুধবার বলেছেন, তারা কখনোই ওই মন্তব্যের জন্য শাহরুখকে ক্ষমা করবেন না।

উল্লেখ্য, ভারতে সম্প্রতি অসহিষ্ণুতা প্রসঙ্গে আমির খান একটি সাধারণ মন্তব্য করেও কট্টরপন্থি হিন্দুদের তোপের মুখে পড়েন।






মন্তব্য চালু নেই