মেইন ম্যেনু

শাহাদাতের ১৪ বছরের কারাদণ্ড?

আগেও শোনা গিয়েছিল এমন কথা। ১১ বছর বয়সী গৃহকর্মী হ্যাপিকে পেটানোর দায়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে চলমান মামলায় ক্রিকেটার শাহাদাত হোসেন ও তার স্ত্রী নিত্য শাহাদাতের শাস্তি হতে পারে সর্বোচ্চ ১৪ বছরের কারাদণ্ড। এমনটাই জানিয়েছিলেন বাদীপক্ষের আইনজীবী।

এবার বার্তা সংস্থা এএফপিকে আবারও সেই একই কথা জানালেন দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা শফিকুর রহমান। তিনি জানিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে ৩৮ টেস্ট ও ৫১ ওয়ানডে খেলা এই ক্রিকেটার ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে তাদের ১৪ বছরের কারাবাস বরণ করতে হবে।

আর সেটা প্রমানিত হয়ে গেছে বলে জানা গেছে। শফিকুর রহমান বললেন, ‘প্রাথমিক ভাবে, শাহাদাত ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে যে অভিযোগ সেটা প্রমানিত হয়েছে।’ একই অভিযোগে ২৯ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারকে গত ১৩ সেপ্টেম্বর সব ধরণের ক্রিকেট থেকে নির্বাসনে পাঠিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

যদিও বুধবা্র নিজেকে ফের নির্দোষ বলে দাবি করলেন শাহাদাত। তার বিরুদ্ধে গৃহকর্মী হ্যাপিকে মারধোরের অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করেন তিনি। বার্তা সংস্থা এএফপিকে তিনি এ ব্যাপারে বলেন, ‘আমি নিষ্পাপ। আমাকে যারা চিনে তারা জানে আমি এমন করতে পারি না।’

গত অক্টোবরে গ্রেফতার হওয়ার পর এবারই প্রথম সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হওয়ার সুযোগ পেলেন শাহাদাত। তার ক্যারিয়ারকে ধ্বংস করতেই তার বিরুদ্ধে এমন ষড়যন্ত্র করা হয়েছে বলেও মন্তব্য করলেন তিনি, ‘একজন মানুষের পেশাদার জীবনের উপরই তার সম্মান নির্ভর করে। আর সেদিক থেকে আমার সব কিছু ধ্বংস হয়ে গেছে।’






মন্তব্য চালু নেই