মেইন ম্যেনু

শিক্ষকদের ডরমেটরিতে হামলা, নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন

রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) শিক্ষক ডরমেটরিতে হামলা চালিয়েছে সন্ত্রাসিরা।এ ঘটনায় নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বিভিন্ন মহলে।

মঙ্গলবার দুপুরের দিকে রসায়ন বিভাগের শিক্ষক এইচ.এম.তারিকুল ইসলামের বাসায় এ হামলার ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়। হামলাকারীরা বাসার সকল আসবাসপত্র তছনছ করে বলে অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে ঐ শিক্ষকের রুমের তালা ভাঙা। রড জাতীয় জিনিস দিয়ে দরজার তালা ভাঙার চিহ্ন । বিছানাপত্রও তছনছ করা হয়েছে। হয়ত সন্ত্রাসিরা কিছু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র খোঁজার চেষ্টা করেছে।
ভূক্তভোগী শিক্ষক জানান,আমি দুপুর বেলা ক্লাস শেষে বাসায় ফিরে আসলে দেখতে পাই দরজার তালা ভাঙ্গা । পরে ভিতরে ঢুকে দেখি বিছানা ,আলমারীসহ সকল কিছু তছনছ হয়ে আছে। তিনি আরও জানান, কোনো জিনিস খোয়া যায়নি কিনÍ কেন হামলা করেছে বুঝতে পারছি না।

হামলার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি মঙ্গলবার রাত সোয়া ৮টায় এক মুঠোফোনে জানান, এ হামলা বাইরে থেকে করা হয়নি। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতর থেকে কেউ এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে তিনি মনে করেন।

হামলা বিষয় জানতে চাইলে প্রক্টর শাহিনুর রহমান এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করে তিনি বলেন, কারা হামলা করেছে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। প্রক্টর ঘটনার পর আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে টহল জোড়দারের নির্দেশ দেন।

প্রক্টর আজ রাত সোয়া ৮ টায় এক মুঠোফোনে জানান, এ ঘটনার বিষয়টি বিবেচনা করে আগামী কিছুদিনের মধ্যে আলোচনা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তার ব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বরত সাব ইন্সপেক্টর ওয়ালিস জানান, ডরমেটেরির সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনা তদন্ত করে আইনানুগ ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

ঘটনার পর সন্ধ্যায় হামলার স্থান পরিদর্শনে আসেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. একে এম নূর-উন-নবী। তিনি এ ঘটনায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্কতার এবং কড়া নিরাপত্তার নির্দেশ দেন। তিনি এ ব্যাপারে সন্ত্রাসিদের চিহ্নিত করে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করার আশ্বাস দেন।

তবে ভুক্তভোগির রেজিস্ট্রার বরাবর অভিযোগপত্র দায়েরের পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রক্টর শাহিনুর রহমান।






মন্তব্য চালু নেই