মেইন ম্যেনু

শিক্ষার্থীদের প্রতি চিঠি লিখেছে গরু

ভারতের রাজস্থানে মাতৃত্বের রুপ নিয়ে শিক্ষার্থীদের প্রতি চিঠি লিখেছে গরু। রাজ্যের পঞ্চম শ্রেণির পাঠ্যবইয়ে গরুর লেখা এই চিঠি অর্ন্তভূক্ত করা হয়েছে।

হিন্দুত্ববাদী এজেন্ডা এগিয়ে নিতে প্রথমবারের মতো গরুবিষয়ক মন্ত্রণালয় গঠন করেছিল রাজস্থান । এবার সেই রাজ্যেই গরুর চিঠি বিষয়ক একটি অধ্যায় পঞ্চম শ্রেণির পাঠ্যবইয়ে সংযোজন করা হয়েছে। এতে একটি গরু মা হিসেবে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে চিঠি লিখেছে। ওই অধ্যায়ে বড় করে গরুর ছবি যুক্ত করা হয়েছে। তাতে উল্লেখ করা হয়েছে, গরুকে মায়ের মতো সম্মান করলে মানুষের কত উপকার হতে পারে।

শিক্ষার্থীদের ‘আমার পুত্র ও কন্যারা’ বলে সম্বোধন করে গরুর পক্ষ থেকে লেখা চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘আমি প্রত্যেক ব্যক্তিকে শক্তি, বুদ্ধিমত্তা, দীর্ঘ জীবন, সুস্বাস্থ্য, আনন্দ ও সমৃদ্ধি দিতে পারি। যারা আমার গুরুত্ব অনুধাবন করে আমাকে নিজের মায়ের মতো বিবেচনা করবে, আমিও তাদের সন্তানের মতো ভালোবাসব।’

চিঠিতে সমাজের জন্য গরুর অবদানের কথা তুলে ধরা হয়েছে। গরুটি লিখেছে, ‘আমি দুধ, মাখন ও ঘি উৎপাদনের মাধ্যমে জীবনের মহৌষধ উৎপাদন করি। আমার মূত্র এবং বর্জ্য থেকে ওষুধ, কীটনাশক আর সার তৈরি হয়। আমার সন্তান বলদ জমি চাষে তোমাদের সহায়তা করে। এ ছাড়া শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমে আমি তোমাদের পরিবেশ বিশুদ্ধ করি।’

পাঠ্যবইয়ে সংযোজিত এই অধ্যায়ের দারুণ প্রশংসা করেছেন রাজ্যের গো-পালন মন্ত্রী ওতারাম দিওয়াসি। তিনি বলেন, ‘গরুর উপকারিতা সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টির বিষয়ে এটি একটি ইতিবাচক পদক্ষেপ।’






মন্তব্য চালু নেই