মেইন ম্যেনু

‘শিক্ষার্থীদের বিপথে নেওয়া ঠেকাতে সজাগ থাকুন’

ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে শিক্ষার্থীদের বিপথে নেওয়া ঠেকাতে সবাইকে সজাগ থাকার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেছেন, ‘জঙ্গিবাদ থেকে ছাত্রসমাজকে মুক্ত রাখতে হবে। তারা যেন কোনো জঙ্গিবাদে জড়িয়ে না পড়ে। জঙ্গিরা শিক্ষিত ছেলেমেয়েদের বিপথে নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে শিক্ষক-অভিভাবক সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশ যেন একটি শান্তিপূর্ণ দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা পায়, সে জন্য সবাইকে কাজ করতে হবে।’

বুধবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রংপুরের রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে দুটি স্থাপনা নির্মাণকাজের উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় নতুন প্রজন্মকে যুগোপযোগী শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে বলে এ সময় মন্তব্য করেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমাদের উচ্চশিক্ষায় ছাত্রীদের সংখ্যা বাড়ছে। এখন ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা সমপরিমাণ। তাই ছাত্রীদের জন্যও নতুন হল করা হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘একটি দেশের উন্নয়নে গবেষণার প্রয়োজন অনেক। শিক্ষার মান উন্নয়নে গবেষণা প্রয়োজন। তাই আমাদের ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনা শেষে গবেষণায় নিয়োজিত হতে হবে।’

শিক্ষার উন্নয়নে সরকারের পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা মাধ্যমিক পর্যন্ত বিনামূল্যে বই দিচ্ছি। যারা উচ্চশিক্ষা নিতে চায় তাদের জন্য শিক্ষাবৃত্তির ব্যবস্থা করেছি। প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা বৃত্তি চালু করা হয়েছে।’

দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষিত লোক দরকার উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এ জন্য প্রতিটি জেলায় একটি করে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হবে। এটি হোক সরকারি কিংবা বেসরকারি উদ্যোগে। যেন ঘরে খেয়ে মানুষ উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত হতে পারে।’

দেশের মানুষের উন্নত জীবন একমাত্র লক্ষ্য বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘আমার একমাত্র লক্ষ্য এ দেশের মানুষ যেন উন্নত জীবনযাপন করতে পারে। আমি কী পেলাম না পেলাম, সেটা আমি কখনো চিন্তা করি না। আমার পরিবারও চিন্তা করে না। বাংলাদেশ নিয়েই আমার চিন্তাভাবনা।’

বাংলাদেশ আন্তর্জাতিকভাবে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে যে স্বীকৃত হচ্ছে, সেটি ধরে রাখার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।



(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই