মেইন ম্যেনু

শিক্ষিকার সঙ্গে করমর্দন না করলে জরিমানা!

সুইজারল্যান্ডে পাঠদানের শুরু এবং শেষে শিক্ষিকার সঙ্গে করমর্দন করতে অস্বীকার করলে মুসলমান ছাত্রকে পাঁচ হাজার ডলার সমপরিমাণ অর্থ জরিমানা করা হবে। দেশটির একটি স্থানীয় কর্তৃপক্ষ বিতর্কিত এ আইন জারি করেছে।

এর আগে আরলেশইম জেলার একটি পৌরসভার স্কুলে দুই মুসলমান কিশোরকে বিপরীত লিঙ্গের সঙ্গে করমর্দন করা থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছিল। এ দু’জন সহদোর ভাই। একজনের বয়স ১৪ এবং অপর জনের ১৫ বলে জানানো হয়েছে। কিন্তু নতুন আইন জারির ফলে তাদেরকে সে ধর্মীয় অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হলো।

দুই ভাইকে করমর্দন করা থেকে অব্যাহতি দেয়ার বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমের মনোযোগ আকর্ষণ করে। এ নিয়ে সুইজারল্যান্ডে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হলে স্কুল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য স্থানীয় কর্তৃপক্ষের দ্বারস্থ হয়।

কর্তৃপক্ষ নির্দেশ দেয় যে, করমর্দন করার অধিকার শিক্ষক-শিক্ষিকার রয়েছে। এ ছাড়া, সুইজারল্যান্ডের সমাজে বিদেশিদের মিশে যাওয়ার পরিবেশ তৈরি করার এবং লিঙ্গ সমতা নিয়ে মানুষের স্বার্থের কারণে ওই দুই ছাত্রের ধর্মীয় বিশ্বাসকে গুরুত্ব দেয়া যায় না বলে নির্দেশ উল্লেখ করা হয়।

সিরিয়ার ওই দুই ছেলের বাবা বাসেলের ইমাম এবং ২০০১ সালে তিনি সুইজারল্যান্ডে চলে গিয়েছিলেন। তাকে রাজনৈতিক আশ্রয়ও দেয়া হয়েছে। ইসলামে পরিবারের কিছু সদস্য ছাড়া আর কারো দেহ স্পর্শ করার অধিকার দেয়া হয় না এবং এ বিষয়টি সুইজারল্যান্ডের শিক্ষা কর্তৃপক্ষকে আগেই জানানো হয়েছিল।

সূত্র: পার্সটুডে।






মন্তব্য চালু নেই