মেইন ম্যেনু

শিক্ষিকা অঞ্জলী হত্যার অভিযোগে সাবেক মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেফতার

চট্টগ্রাম নার্সিং কলেজের পরিচালক শিক্ষিকা অঞ্জলী রাণী দেবীকে হত্যার দীর্ঘ পাঁচ মাস পর মোহাম্মদ রেজা নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে নগর পুলিশের (ডিবি) গোয়েন্দা বিভাগ।

রেজা পটিয়া আল জামিয়া ইসলামিয়া মাদ্রাসার সাবেক শিক্ষক।

পুলিশের ধারণা, তিনি নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন আনসার উল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য।

জিইসি এলাকা থেকে শনিবার গভীর রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানান ডিবি পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার এসএম তানভির আরাফাত।

তানভির আরাফাত জানান, পারিবারিক কিংবা পেশাগত দ্বন্দ্ব থেকে শিক্ষিকা অঞ্জলী রাণী দেবীকে হত্যা করা হতে পারে বলে প্রথমে ধারণা করা হয়েছিল। কিন্তু, দীর্ঘ তদন্তে এখন মনে হচ্ছে শিক্ষার্থীদের হিজাব পরা নিয়ে কটূক্তির জের ধরে খুন হতে পারেন তিনি। ২০১২ সালের ৩ জুলাই নার্সিং কলেজে হিজাব পরে আসা ও নামাজ পড়ার কারণে শিক্ষার্থীদের ক্লাস, পরীক্ষা এবং ওয়ার্ডে ডিউটিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে ড্রেসকোডের অজুহাতে বাধা দেয় কর্তৃপক্ষ। বিশেষ করে ক্লাসের সময়ও নামাজে বেরিয়ে যাওয়া নিয়ে বাকবিতণ্ডায় জড়ান তিনি।

তানভীর আরও জানান, হামলার ধরণ, হত্যাকাণ্ডে অংশ নেওয়া মুখোশধারী চার যুবক এবং ঘটনার পূর্বাপর বর্ণনা বিশ্লেষণ করলে বিষয়টি স্পষ্ট। কারণ একই কায়দায় ঢাকায় খুন হন ব্লগার আশিকুর রহমান বাবু। ওই ঘটনায় আটক হয় মাদ্রাসা ছাত্র জিকরুল্লাহ এবং আরিফুল। তারাও ইসলামপন্থী আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য। গ্রেফতার রেজাকে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ চলছে বলে এই মূহুর্তে আর কিছুই বলা যাচ্ছে না।

শিক্ষার্থীরা জানান, সে সময় অভিভাবকদের ফোন করে তাদের বহিষ্কারেরও হুমকি দেওয়ার ঘটনা ঘটেছিল। এরপর হিজাব পরতে দেওয়ার দাবিতে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা। এ সময় কলেজে বিভিন্ন ধর্মীয় বই, হিজাব পরা ও নামাজ পড়া নিয়ে সিনিয়র শিক্ষক অঞ্জলী রাণী দেবী কটূক্তি করেন বলে অভিযোগও রয়েছে। এ সময় কিছু ছাত্র বিষয়টিকে আরও উসকে দিয়েছিল। তাদেরই একটি অংশ অঞ্জলীকে দেখে নেওয়ার হুমকিও দিয়েছিল।

জানা গেছে, অঞ্জলীর গ্রামের বাড়ি সিলেটের মৌলভী বাজারে। নগরের চকবাজার তেলিপট্টি গলির সাধন কুমার ধর নামের এক ব্যক্তির মালিকানাধীন পাঁচতলা ভবনের দোতলার একটি ফ্ল্যাটে ভাড়ায় থাকতেন অঞ্জলী ও তার স্বামী এবং মেয়ে ডা. অর্পিতা ও অদীতি। এর মধ্যে অর্পিতা এমবিবিএস পাশ করে চমেক হাসপাতালে ইন্টার্নি করছেন। অদীতি ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে তৃতীয় বর্ষে পড়াশোনা করছেন।

গত ১০ জানুয়ারি সকাল পৌণে নয়টায় বাসা থেকে বেরিয়ে নার্সিং কলেজে যাওয়ার সময় চারজন মুখোশধারী দুর্বৃত্ত ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করে অঞ্জলীকে। এ ঘটনায় তার স্বামী ডা. রাজেন্দ্র লাল চৌধুরী পাঁচলাইশ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এতে মুখোশধারী অজ্ঞাত চারজনকে আসামি করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই