মেইন ম্যেনু

শিগগিরই জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হচ্ছে ভোলার ২শ’ ২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ

দেশের দক্ষিণাঞ্চলের বিদ্যুৎ সমস্যা সমাধানে শিগগিরই জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হচ্ছে ভোলার ২শ’ ২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ। এ প্লান্টটি চালু হলে বিদ্যুৎ সংকটে নাকাল দক্ষিণাঞ্চলের ছয় জেলার মানুষের মাঝে স্বস্তি ফিরে আসবে। শিল্প-কারখানা স্থাপনের মাধ্যমে সৃষ্টি হবে ব্যাপক কর্মসংস্থানের।

নতুন এ বিদ্যুৎ প্লান্টটি চালুর মাধ্যমে দ্বীপজেলা ভোলা জাতীয় গ্রিডে সংযুক্ত হওয়ার পাশাপাশি তথা দক্ষিণাঞ্চলের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড বাড়বে বলে আশাবাদ কর্তৃপক্ষের।

দেশের বিদ্যুৎ সংকট দূর করতে শাহবাজপুর কূপের গ্যাস দিয়ে ২০১৩ সালে ভোলার বোরহানউদ্দিনে ২শ’ ২৫ মেগাওয়াট কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎ প্লান্ট নির্মাণ কাজ শুরু হয়। ইসলামিক ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক, আইডিবি’র অর্থায়নে চীনের সরকারি প্রতিষ্ঠান চেংডা ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে।

প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ৬৫ মেগাওয়াটের ২টি গ্যাস টারবাইন জেনারেটর ও ৬৫ মেগাওয়াটের একটি স্টিম টারবাইন ইউনিট নির্মাণ করা হয়েছে। গ্যাস টারবাইন জেনারেটরের ২টি ইউনিটের কাজ শেষ হওয়ায় জাতীয় গ্রিডের সাথে সিনক্রোনাইজ করা হয়েছে।

অপরদিকে ভোলা-বরিশাল ২শ’ ৩০ কেভি বিদ্যুৎ সঞ্চালন কেন্দ্র নির্মাণ শেষে গত ১৮ জুন পরীক্ষামূলক ভাবে বিদ্যুৎ সঞ্চালনও শুরু হয়েছে।
ভোলা ২২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ প্লান্ট প্রকল্পের পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মোঃ হারুন অর রশিদ বলেন, ‘ জুলাই মাসের প্রথম চলতি সপ্তাহের দিকে আমরা ১৩০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করতে পারবো। এতে ভোলাবাসী জাতীয় গ্রিডের আওতায় আসবে’।

এদিকে এটি চালু হলে বিদ্যুৎ সংকট সমাধানের সাথে সাথে অবহেলিত দক্ষিণাঞ্চলের শিল্প উন্নয়ন তরান্বিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করছেন স্থানীয় প্রশাসন ও সুশীল সমাজ।

এদিকেভোলা জেলা পরিষদের প্রশাসক আবদুল মমিন টুলু বলেন, ‘ ভোলা, বরিশাল, পটুয়াখালী, ঝালকাঠি, পিরোজপুর ও খুলনার কিছু অংশ এখান থেকে বিদ্যুৎ সুবিধা পাবে’।

ভোলা স্বার্থরক্ষা ও উন্নয়ন কমিটি সম্পাদক অমিতাভ অপু বলেন, ‘সমস্ত দক্ষিণাঞ্চলের শিল্প উন্নয়নে একটি অবদান রাখবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। কেননা দক্ষিণাঞ্চল এতদিন অবহেলিত ছিলো। এখানে কোনো শিল্প অঞ্চল গড়ে ওঠেনি’।

অন্যদিকে ভোলা বিসিক শিল্প নগরীর ডেপুটি ম্যানেজার মোঃ সাহাবুদ্দিন মনে করনে, এর ফলে উদ্যোক্তারা শিল্পায়নে আরো এগিয়ে আসবে। তিনি আরো বলেন, ‘শিল্পায়নের ক্ষেত্রে একটি বিশাল ভূমিকা পালন করবে। আমার মনে হয় উদ্যোক্তারা এগিয়ে আসবেন এবং সরকার এক্ষেত্রে অনেক আন্তরিক’।এদিকে জুলাই মাসে প্রথম পর্যায়ে গ্যাস টারবাইনের ২টি ইউনিট বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু করলেও আগস্টে স্টিম টারবাইনের আরো ৬৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে।






মন্তব্য চালু নেই