মেইন ম্যেনু

শিগগিরই বিচারের সম্মুখীন হচ্ছেন ফখরুল

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পল্টন থানার নাশকতার একটি মামলায় বিচারের সম্মুখীন হচ্ছেন। এই মামলায় অভিযোগ গঠন হলে মির্জা ফখরুলের বিরুদ্ধে নাশকতার কোনো মামলায় আনুষ্ঠানিক বিচার শুরু হবে।

রোববার ঢাকা মহানগর হাকিম আলী মাসুদ সেখের আদালতে ৭৪ জনের বিরুদ্ধে পল্টন থানার নাশকতার একটি মামলায় অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য দিন ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন মির্জা ফখরুল ইসলাম শারীরিক অসুস্থতার কারণে আদালতে হাজির হতে না পারায় তার পক্ষে আইনজীবী জয়নুল আবেদীন মেজবাহ অভিযোগ গঠন শুনানি পেছানোর জন্য সময়ের আবেদন করেন।

মামলাটি অনেক পুরোনো বিবেচনায় আদালত আজই অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য আসামিপক্ষের আইনজীবীকে বলেন। আসামিপক্ষের আইনজীবী আদালতকে জানান, ‘এবারের মতো আমাদের সময়ের আবেদন মঞ্জুর করা হোক।’ তিনি আদালতের কাছে করজোড়ে শেষবারের মতো সময়ের আবেদন মঞ্জুর করতে অনুরোধ করেন।

পক্ষান্তরে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আদালতকে বলেন, ‘মামলাটি ২০১২ সালে দায়ের করা হয়েছে। ইতিমধ্যে অনেকবার এই মামলায় সময়ের আবেদন মঞ্জুর করা হয়েছে। তাই সব দিকে বিবেচনা করে মামলাটির অভিযোগ গঠন করা হোক।’

উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত শেষবারের মতো সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি অভিযোগ গঠনের জন্য শুনানির দিন ধার্য করেন।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১২ সালের ৯ ডিসেম্বর ১৮ দলীয় জোটের অবরোধ চলাকালে ফকিরাপুল থেকে পল্টনের ভিআইপি রোড এলাকায় গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটায় নেতা-কর্মীরা। ওই ঘটনায় পল্টন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবু তাহের ভূঁইয়া বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

২০১৪ সালের ২৮ জুলাই পল্টন থানার এসআই আবু জাফর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীসহ ৭৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।






মন্তব্য চালু নেই