মেইন ম্যেনু

শিশুর হঠাৎ পেটব্যথা? জেনে নিন কী করবেন

সারাদিন দৌড়াদৌড়ি আর দুষ্টুমিতে মেতে থাকায় শিশুর একমাত্র কাজ। ঠিকমতো খাবার খেতে তাদের চরম অনীহা। অথচ আজেবাজে খাবার খেয়ে পেটকে বানিয়ে ফেলে কৃমির আস্তানা। যখন তখন পেট ব্যথা, বমি ভাবসহ নানা ধরনের পেটের অসুখে আক্রান্ত হয়। হঠাৎ করেই পেটে ব্যথা শুরু হওয়া তার নিত্যাকার ব্যাপারে পরিণত হয়ে গেছে।

সোনামনির পেটে ব্যথায় কষ্টমাখা মুখটা দেখতে বাবা-মায়ের মোটেও ভালো লাগে না। আপনার বাচ্চা যদি কথা বলতে পারে তবে সে তার ব্যথার কথা প্রকাশ করতে পারবে। পুরো পেট বা পেটের অর্ধেকের বেশি অংশ জুড়ে ব্যথা থাকলে বুঝতে হবে স্টমাক ভাইরাস, বদহজম, গ্যাস বা পায়খানার সমস্যা। যদি পেট মোচড় দেয় তবে তা গ্যাস এর জন্য হতে পারে।

পেট যদি কামড়ায় এবং হঠাৎ ব্যথা শুরু হয় আবার একটু পরেই ভালো হয়ে যায়, তারপর আবার শুরু হয়- এটাকে বলা হয় ‘ওয়েবি পেইন’। এই ব্যথা অধিকাংশ সময় মারাত্মক হয়ে থাকে।

আপনার বাচ্চার যদি পেটের একটি নির্দিষ্ট জায়গায় ব্যথা চিহ্নিত করে তবে তা এপেন্ডিসাইটিস অথবা পিত্তথলীয় সমস্যাও হতে পারে। পেটের আলসারজনিত সমস্যাতেও এমনটা হতে পারে। বাচ্চা কথা বলতে না পারলে তার পেটে ব্যথা আছে কিনা তা বোঝা কষ্টকর। এক্ষেত্রে বাবা-মায়ের দায়িত্ব থাকবে ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করার।

বাচ্চা যদি কান্নাকাটি করতে থাকে, পা উপরে তুলে পেটের দিকে নিয়ে আসে অথবা বাচ্চার খাবারের পরিমাণ কমে গেলে বুঝতে হবে সে কোনো সমস্যায় আছে। এসময় ব্যথা কমানোর জন্য জরুরি চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

পেটে ব্যথা হলে চর্বিযুক্ত খাবার তাৎক্ষণিকভাবে বন্ধ রাখতে হবে। টমেটো, লেবুজাতীয় খাবার একদমই দেয়া যাবে না। চকোলেট ও অন্যান্য দুগ্ধজাতীয় খাবারও এসময় বন্ধ রাখতে হবে। অল্প পরিমাণ খাবার বার বার খাওয়াতে হবে। পর্যাপ্ত পরিমানে শাকসবজি ও ফলমূল খাওয়ালে দারুণ উপকার আসবে।






মন্তব্য চালু নেই