মেইন ম্যেনু

শীতের সোয়েটার রাখুন নতুনের মতো সুন্দর

শীতকালে সবার মাঝে একটাই মিল দেখা যায়, আর তা হলো সোয়েটার। শাড়ি পড়া নারীর শরীরেও সোয়েটার, তেমনি উঠতি বয়সের জিন্স পরা মেয়েটির গায়েও চাপানো একটা সোয়েটার। এই সোয়েটারের যত্নও তাই শীতকালে বেশি নিতে হয়। যত্নের অভাবে সোয়েটার হয়ে পড়ে ভুসভুসে, সুতো উঠে যায়, ফিটিং একটা সোয়েটার হয়ে পড়ে ঢলঢলে। জেনে নিন পুরো শীতকাল জুড়ে সোয়েটার নতুনের মতো রাখার কৌশলগুলো।

১) ভুসকো সরিয়ে ফেলুন

সোয়েটার পুরনো হয়ে গেলে তাতে ভুসকো উঠে যায়, অর্থাৎ সোয়েটারের ওপরে তুলোর মতো এক ধরণের পরত দেখা যায়। এতে সোয়েটার যে পুরনো তা বোঝা যায়। এই “পিল” অথবা ভুসকো সরাতে দারুণ একটা কৌশল হলো রেজর ব্যবহার করা। হ্যাঁ, দাড়ি কামাতে যে রেজর ব্যবহার করেন সেটা চালিয়ে দিন সোয়েটারের ওপর দিয়ে। এতে ভুসকো উঠে চলে আসবে। অথবা ছোট্ট একটা কাঁচি দিয়ে কেটে নিতে পারেন যদি ভুসকো কম থাকে।

২) টান লাগা সুতো সারিয়ে ফেলুন

শুধু সোয়েটারই নয়, অন্যান্য কাপড়েও হঠাৎ টান লেগে সুতো বের হয়ে যাওয়াটা স্বাভাবিক। এক্ষেত্রে ওই সুতো কেটে ফেলাটা মোটেই বুদ্ধিমানের কাজ নয়। কাপড় ধরে ধীরে ধীরে টেনে সমান করে ফেলুন যাতে টান লাগার ব্যাপারটা বোঝা না যায়। এরপর একটা সুঁই দিয়ে বের হয়ে থাকা সুতো বা উলের অংশটা আবার কাপড়ের ভেতরে ঢুকিয়ে দিন। যদি ভারি সোয়েটার হয়ে থাকে তবে ভেতরের দিকে স্বচ্ছ নেইলপলিশ দিয়ে আটকে দিন যাতে উল আর আলগা না হয়ে যায়।

৩) সোয়েটার ঝুলিয়ে রাখবেন না

কোন অবস্থাতেই হ্যাঙ্গারে বা আলনায় ঝুলিয়ে রাখবেন না আপনার সোয়েটার। এতে নিজের ওজনেই সোয়েটারের শেপ নষ্ট হয়ে যাবে দ্রুত। ড্রয়ার বা তাকে ভাঁজ করে গুছিয়ে রাখুন। সোয়েটার ধোয়ার পরেও ঝুলিয়ে না রাখাই ভালো। প্লাস্টিকের চেয়ারের ওপরে বিছিয়ে শুকাতে পারলে ভালো হয়।

৪) সোয়েটার সব সময় হাতে ধোবেন

কেউ কেউ সময় বাঁচানোর জন্য সব ভারি কাপড় ওয়াশিং মেশিনে দিয়ে দেন। কিন্তু সোয়েটার সাধারণত ওয়াশিং মেশইনে ধোয়ার উপযোগী হয় না। হালকা গরম পানিতে হাতে ধুয়ে নিন সোয়েটার। চিপবেন না, বরং কাপড়টাকে গোল করে নিয়ে চাপ দিয়ে যতটুকু সম্ভব পানি বের করে নিন। এরপর শুকাতে দিন।

৫) সোয়েটার সাবধানে তুলে রাখুন

শীত শেষ হয়ে বসন্ত এলে সোয়েটার তুলে ফেলতে হবে। সে সময়ে অবশ্যই ময়লা সোয়েটার ট্রাঙ্কে তুলে রাখবেন না। পরিষ্কার করে নিয়ে, শুকিয়ে গুছিয়ে রাখুন। অনেকে ভাবেন ড্রাই ক্লিনিং করলে ভালো হবে কিন্তু তা না করে হাতেই ধুয়ে রাখুন।

এ ছাড়াও দেখে নিতে পারেন সোয়েটার সহজে ভালো রাখার কিছু “হ্যাক”-

– কিছু উন্নত মানের ওয়াশিং মেশিনে উল অথবা হ্যান্ড ওয়াশ সেটিং থাকে। আপনার উলের সোয়েটারে যদি এমব্রয়ডারি অথবা আলগা চুমকি, পাথর লাগানো না থাকে তাহলে এই সেটিং ব্যবহার করে ওয়াশিং মেশিনেই ধুয়ে নিতে পারেন।

– ঘামের দুর্গন্ধ দূর করতে সোয়েটার ধোয়ার সময়ে সিকি কাপ সাদা ভিনেগার দিয়ে দিতে পারেন।

– সোয়েটারের সাথে অনেক সময়ে এক্সট্রা বোতাম দেওয়া হয়। এগুলো কেটে একটা কৌটায় রেখে দিতে পারেন যাতে দরকারের সময়ে অন্যরকম কোন বোতাম ব্যবহার করতে না হয়।






মন্তব্য চালু নেই