মেইন ম্যেনু

শুনানিতে ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট: দোষি প্রমাণিত হলে অর্থ ফেরত দেবে আরসিবিসি

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির বিষয় নিয়ে আজ চতুর্থ দিনের মতো ফিলিপাইনের সিনেট কমিটিতে ফের শুনানি শুরু হয়েছে।আজকের শুনানিতে অংশ নিয়েছেন ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং করপোরেশনের (আরসিবিসি) প্রেসিডেন্ট লরেঞ্জো ভি তান। শুনানিতে তিনি বলেন, রিজাল ব্যাংক যদি এ ঘটনায় দোষি প্রমাণিত হয় তাহলে পুরো অর্থ ফেরত দেবে ব্যাংক।বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবিরও ফিলিপাইনের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর আমান্দো তেতাঙ্কোর কাছে পাঠানো একটি চিঠিতে রিজার্ভ চুরির ঘটনায় ফিলিপাইনের রিজাল ব্যাংককে সরাসরি দায়ী করেছেন।এ নিয়ে দুই গভর্নরের সঙ্গে সম্প্রতি টেলিফোনে কথাও হয়েছে। এর পরই আজ শুনানিতে অংশ নিয়ে রিজাল ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট অর্থ ফেরত দেয়ার কথা বললেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্ভার হ্যাক করে আন্তর্জাতিক একটি চক্র চারটি আদেশের বিপরীতে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকে গচ্ছিত অর্থ থেকে ৮ কোটি ১০ কোটি ডলার ফিলিপাইনে সরিয়ে সেখানকার রিজাল ব্যাংকের চারটি হিসাব জমা করা হয় এবং পরে সেখান থেকে পুরো অর্থই তুলে নেয়া হয়।

এদিকে রিজাল ব্যাংকের জুপিটার শাখার সাবেক ব্যবস্থাপক মায়া দেগুইতোর বিরুদ্ধে এরই মধ্যে ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট লরেঞ্জো ভি তান দুটি মামলা করেছেন। এ দুই মামলার একটি মানহানির অভিযোগে ৩ কোটি ২০ লাখ পেসো ক্ষতিপূরণ চেয়ে, অন্যটি ফৌজদারি অপরাধের অভিযোগে করা হয়। রিজার্ভ চুরির ঘটনায় তানকে জড়িয়ে দেগুইতো বক্তব্য দেওয়ায় মানহানির মামলাটি করেন তান।






মন্তব্য চালু নেই