মেইন ম্যেনু

শুভ জন্মাষ্টমীতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর বাণী

হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ধর্মীয় অনুষ্ঠান শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল মো. হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী তাঁদের বাণীতে সকল ধর্মের মানুষকে ভ্রাতৃত্ব ও সম্প্রীতি বজায় রেখে নিজ নিজ ধর্ম পালনে সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

আজ শুক্রবার শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষ্যে দেয়া পৃথক বাণীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বর্তমান সরকার দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করতে বদ্ধপরিকর। বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। এখানে সকল ধর্ম ও বর্ণের মানুষ যুগ যুগ ধরে মিলেমিশে বসবাস করে আসছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, শ্রীকৃষ্ণ আজীবন শান্তি, মানবপ্রেম ও ন্যায়ের পতাকা সমুন্নত রেখেছেন। মানুষে মানুষে ভ্রাতৃত্ব স্থাপন এবং সমাজে সাম্য প্রতিষ্ঠাই ছিল তাঁর একমাত্র লক্ষ্য।

জন্মাষ্টমী উপলক্ষে দেশের সকল নাগরিকের সুখ, শান্তি ও কল্যাণ কামনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, শ্রীকৃষ্ণের আদর্শ ও শিক্ষা বাঙালির হাজার বছরের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি, সৌহার্দ্য ও ভ্রাতৃত্বের বন্ধনকে আরও সুদৃঢ় করতে তাঁর ভক্তদের অনুপ্রাণিত করবে।

এদিকে হিন্দু ধর্মের শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে দেয়া পৃথক বাণীতে রাষ্ট্রপতি মো. আবন্দুল হামিদ বলেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। আবহমানকাল থেকে এ দেশের সকল ধর্মের অনুসারীরা পারস্পরিক সম্প্রীতি ও বন্ধুত্ব বজায় রেখে নিজ নিজ ধর্ম পালন করে আসছে।

সমাজে বিদ্যমান ভ্রাতৃত্ব ও বন্ধুত্বের বন্ধনকে আরও দৃঢ় করে তা জাতীয় অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি অর্জনে কাজে লাগানোর জন্য দেশের সকল ধর্মাবলম্বীদের প্রতি আহ্বান জানান রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ।

বাণীতে রাষ্ট্রপতি শুভ জন্মাষ্টমীতে দেশ ও দেশের বাইরের হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রতি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। একইসঙ্গে তিনি শ্রীকৃষ্ণের জন্মতিথি ‘জন্মাষ্টমী’ উৎসবের সাফল্য কামনা করেন।






মন্তব্য চালু নেই