মেইন ম্যেনু

শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর মতই অদ্বিতীয় : কামরুল

খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেছেন, শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর মতই এক এবং অদ্বিতীয়। শেখ হাসিনর জনপ্রিয়তা এখন আকাশচুম্বি।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে কনফারেন্স লাউঞ্জে ‘জাতির লক্ষ্য পূরণে রাজনীতি ও বর্মান বাস্তবতা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

বি বি ফাউন্ডেশন (বাহাদুর ব্যাপারী ফাউন্ডেশন) নামের একটি সংগঠন এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

কামরুল ইসলাম বলেন, শেখ হাসিনার ইমেজ ধ্বংসের জন্যই এ জঙ্গিবাদের উত্থান। পদ্মা সেতু যাতে না হয়, সবদিক দিয়ে যাতে বাংলাদেশকে পঙ্গু করে দেয়া যায় সেজন্যই এসব কর্মকাণ্ড ঘটাচ্ছে তারা।

তিনি বলেন, তারা শেখ হাসিনাকে থামিয়ে দিতে চায়। বাংলাদেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে প্রশ্নবিদ্ধ

করতে। এজন্যই জঙ্গবাদী কর্মকাণ্ড চালিয়ে বাংলাদেশের ভাবমুর্তি ক্ষুণ্ন করার চেষ্টা করাচ্ছে তারা। ‌‘৭৫-এ বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্যদিয়ে বিএনপির জন্ম হয়েছে।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, একাত্তরের পরাজিত শক্তিরাই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে। জিয়াউর রহমানকে ব্যবহার করা হয়েছে বঙ্গবন্ধুর হত্যার কুশীলব হিসেবে। সেদিন পাকিস্তানি ও আমেরিকান দূতাবাস সারারাত খোলা ছিল। ৭৫ আর আজকের জঙ্গিবাদী তৎপরতা বিচ্ছিন্ন নয়। একই সুতোয় গাঁথা।

তিনি বলেন, ‘৭৫ পট পরিবর্তনের পরের অবস্থা দেখেন, খুনিদের রক্ষা করা, বিদেশি দূতাবাসে খুনিদের চাকরি দেয়া, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধ্বংস করা, পরাজিত শক্তিদের রাজনীতির সুযোগ করে দেয়া সবই করেছে তারা।

বিএনপির সঙ্গে আলোচনায় বসার প্রশ্নই আসে না মন্তব্য করে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, এরা কিলার, এদের চূড়ান্ত টার্গেট শেখ হাসিনা। জামায়াতকে ছাড়লেও এদের সঙ্গে আলোচনায় বসার প্রশ্নই ওঠে না।

বি বি ফাউন্ডেশনের সভাপতি বাহাদুর ব্যাপারীর সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, গবেষক ড. আলাউদ্দিন আলম, বাংলাদেশ হাক্কানী খানকা শরীফের শাহ শাহনাজ সুলতানা, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতা ফারুক হোসেন, আওয়ামী লীগের উপকমিটির সহ-সম্পাদক মারুফা আক্তার পপি, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আরিফা রহমান রুমা, বিবি ফাউন্ডেশন সাধারন সম্পাদক সাইফুর রহমান তপন প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই