মেইন ম্যেনু

শেষ দিনেও সিম নিবন্ধনে সার্ভার ডাউন

বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধনের শেষ দিন আজ। নিবন্ধনের শেষ সময়ে সেবা কেন্দ্রগুলোতে এখন উপচেপড়া ভিড়। গ্রাহকদের ভিড়ে বাদ সেধেছে এনআইডি সার্ভার। সার্ভারে সমস্যা দেখা দেয়ায় নিবন্ধন কার্যক্রম ব্যাহত হয়েছে দুপুর পর্যন্ত।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, প্রচণ্ড গরম উপেক্ষা করে শত শত মানুষ কাস্টমার পয়েন্ট ও নিবন্ধন সেবাকেন্দ্রগুলোতে লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। সকাল থেকেই নিবন্ধন কেন্দ্রগুলোতে গ্রাহকরা আসতে থাকে। সিম নিবন্ধনের জন্য আসা ব্যক্তিদের সামাল দিতে হিমশিম খেতে হয় তাদের। গ্রাহকদের ব্যাপক উপস্থিতির কারণে সকালে কয়েক ঘণ্টার জন্য মূল ‘সার্ভার ডাউন’ হয়ে যায়। ফলে নিবন্ধনের কাজে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত গতি কম ছিল। তবে কোন কেন্দ্রেই কাজ বন্ধ হয়নি। সার্ভারের ধীর গতির সময় ফরম পূরণসহ অন্যান্য কাজ হয়েছে।

বিটিআরসির হিসাবে, সচল প্রায় তের কোটি সিমের মধ্যে ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত নিবন্ধন হয়েছে প্রায় ৯ কোটি সিম। বাকি চার কোটি সিম নিবন্ধনের চাপ সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে অপারেটররা।

গ্রাহকদের অভিযোগ একটি সিম নিবন্ধনেই সময় লাগছে আধা ঘণ্টা। ফিরতি এসএমএস পাওয়ায়ও আছে জটিলতা।

এদিকে, সার্ভার ডাউনের কারণে গতকাল শুক্রবার প্রায় চার ঘণ্টা সিম পুন:নিবন্ধন বন্ধ থাকে। একইভাবে আজও সার্ভারের ত্রুটির কারণে দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়েও পুন:নিবন্ধন করতে পারছেন না গ্রাহকরা।

তবে অপারেটরদের দাবি, গ্রাহক চাপে শেষ সময়ে কমে যায় সার্ভারের গতি। তবে সার্ভার ত্রুটির এই অভিযোগ অস্বীকার করছে এনআইডি।

নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সিম নিবন্ধন করতে না পারলে আগামীকাল (রবিবার) তিন ঘণ্টার জন্য অনিবন্ধিত সিম বন্ধ করে দেয়া হবে বলে জানিয়েছে বিটিআরসি।

শুক্রবার সাংবাদিকদের কাছে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, ‘জনগণের সমস্যা, সুবিধা-অসুবিধার প্রতি আমরা সবসময় শ্রদ্ধাশীল। সিম নিবন্ধনের সময় বাড়ানো হবে কিনা তা আজ জানানো হবে।’






মন্তব্য চালু নেই