মেইন ম্যেনু

শেষ দিনে উৎসবমুখর পরিবেশে মনোনয়নপত্র জমা

মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন আজ বৃহস্পতিবার বেশ উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিচ্ছেন পৌরসভা নির্বাচনের মেয়র ও কাউন্সিলর পদের প্রার্থীরা। নেতাকর্মী-সমর্থকদের নিয়ে জাঁকজমক পরিবেশে প্রার্থিরা যাচ্ছেন রিটার্নিং কর্মকর্তার কার‌্যালয়ে।

দলীয়ভাবে নির্বাচন হচ্ছে বলে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার ‘শোভাযাত্রায়’ অন্যবারের চেয়ে রাজনৈতিক আবহ বেশি। শত শত কর্মী-সমর্থক নিজ নিজ প্রার্থীদের পক্ষে স্লোগান দিচ্ছেন। তবে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার‌্যালয়ের সামনে কর্মী-সমর্থকদের ভিড় থাকলেও নিষেধাজ্ঞা থাকায় সেখানে স্লোগান দিচ্ছেন না কেউ।

তফসিল ঘোষণার পর থেকেই মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সুযোগ থাকলেও দলের মনোনয়ন ও সমর্থন পাওয়া-না পাওয়ার নানা হিসাব-নিকাশ শেষে আজ শেষে দিনেই মেয়র-কাউন্সিল পদপ্রার্থীদের ভিড় লেগেছে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার‌্যালয়ে।

আমাদের সাভার প্রতিনিধি জানান, ইতিমধ্যে সাভার সদর পৌরসভার মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আবদুল গণি।

ধামরাই পৌরসভায় মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন প্রধান দুই রাজনৈতিক দলের মেয়র পদপ্রার্থীরা। আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন কবির মোল্লা এবং বিএনপির মনোনীত প্রার্থী দেওয়ান নাজিমউদ্দিন মঞ্জু।

বেশ কজন কাউন্সিলর প্রার্থীও মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

এ পৌরসভায় মেয়রদের চেয়ে কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে মনোনয়ন জমা দেয়ার ‘শোভাযাত্রা’ বেশি সরব দেখা গেছে।

আমাদের ফরিদপুর প্রতিনিধি জানান, বোয়ালমারী পৌরসভায় ইতিমধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শাহজাহান মৃধা ও নগরকান্দায় আবদুল শুকুর শেখ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

এ দুই পৌরসভায় মেয়র প্রার্থীদের দিকেই নগরবাসীর বেশি কৌতূহল বলে জানান আমাদের প্রতিনিধি। তবে কাউন্সিলর প্রার্থীদের ঝমকও কম নয়।

নারায়ণগঞ্জ থেকে আমাদের প্রতিনিধি জানান, প্রার্থীরা নেতাকর্মী পরিবেষ্টিত হয়ে শোভাযাত্রা নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার‌্যালয়ের দিকে যাচ্ছেন মনোনয়নপত্র জমা দিতে।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী পৌরসভা নির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন আজ বৃহস্পতিবার। সম্ভাব্য প্রার্থীদের আজ বিকেল পাঁচটার মধ্যে রিটার্নিং কর্মকর্তার দপ্তরে মনোনয়নপত্র জমা দিতে হবে।

এরপর মনোনয়নপত্র বাছাই করা হবে ৫ ও ৬ ডিসেম্বর। প্রত্যাহারের শেষ দিন ১৩ ডিসেম্বর। পরদিন রিটার্নিং কর্মকর্তা বৈধ প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ করবেন। নির্বাচন কমিশন ঘোষিত আচরণবিধি অনুযায়ী ৯ ডিসেম্বর থেকে সম্ভাব্য প্রার্থীরা প্রচারকাজ চালাতে পারবেন।

৩০ ডিসেম্বর একযোগে দেশের ২৩৫টি পৌরসভায় ভোট নেয়া হবে।






মন্তব্য চালু নেই