মেইন ম্যেনু

শেষ ধাপে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ৩

শেষ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে সহিংসতায় তিনজন নিহত হয়েছেন। এসময় গুলিবিদ্ধসহ শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন। শনিবার ভোট গ্রহণকালে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, ফেনীর সোনাগাজীর মো. নাসির (১৮), ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার সালটিয়া ইউনিয়নের শাহজাহান (৫২) নোয়াখালী সদর উপজেলার নেওয়াজপুর ইউনিয়নের ইয়াসির আরাফাত (২৩)। এ নিয়ে ছয় ধাপের নির্বাচনে অন্তত ১২৩ জনের প্রাণহানি হলো। এছাড়া সংঘর্ষে সারাদেশে কয়েক হাজার মানুষ আহত হয়েছেন।

ময়মনসিংহ: গফরগাঁও উপজেলায় নির্বাচনী সংহিসতায় মো. শাহাজাহান (৫২) নামে একজন নিহত হয়েছেন। এসময় তিনজন গুলিবিদ্ধসহ আরো ৩০ জন আহত হয়েছেন। নিহত শাহাজাহান উপজেলার বাগুয়া গ্রামের বাসিন্দা।

শনিবার দুপুরে উপজেলার সালটিয়া ইউনিয়নের পুখুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে দুই ইউপি সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) হাবিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নোয়াখালী: সদর উপজেলার নিয়াজপুর ইউনিয়নের ভেলানগর মোহাম্মাদীয়া ইহসান মাদরাসা কেন্দ্রে নির্বাচনী সহিংসতায় আহত ইয়াসিন আরাফাতের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার বিকেল ৪টার দিকে ঢাকায় নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

এর আগে সকাল ১১টার দিকে ভেলানগর মোহাম্মাদীয়া ইহসান মাদরাসা কেন্দ্রে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এসময় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে ইয়াসিন আরাফাত গুরুতর আহত হন। পরে আহত ইয়াসিন আরাফাতকে নোয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। এরপর সেখানে তার অবস্থার অবনতি হয়। বিকেল ৪টার দিকে গুরুতর অবস্থায় ঢাকায় নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

ফেনী: সোনাগাজীতে কেন্দ্র দখল করে ব্যালট বাক্স ছিনতাইকালে গুলিতে মো. নাসির (১৮) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এসময় অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে চর চান্দিয়া ইউনিয়নের চরভৈরব কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।






মন্তব্য চালু নেই