মেইন ম্যেনু

শেষ পর্বে আত্মহত্যা করে টম-জেরি?

সবার শৈশবজুড়ে টম অ্যান্ড জেরির ঝগড়া, খুঁনসুটি, আড়ি আর ভাবের গল্প। উইলিয়াম হানা ও জোসেফ বারবারার হাত ধরে সৃষ্টি কার্টুনের দুনিয়ায় নতুন ইতিহাস। কিন্তু বেশিরভাগ ভক্ত জানলো না সদা চঞ্চল উচ্ছ্বল এই জুটির পরিণতিটা কী ছিল। তবে জানা যায়, হাসি আনন্দে ভরপুর এই জুটির মর্মান্তিক পরিণতি হয়েছিল। এরা নাকি একসাথে আত্মহত্যা করেছিল।

Blue Cat Blues নামের পর্বে ঘটে এই আত্মহত্যার ঘটনা। ১৯৫৬ সালের ১৬ নভেম্বর উইলিয়াম হানা এবং জোসেফ বারবারা নির্মিত এই পর্বটি মুক্তি পায়।

কিন্তু ইঁদুর-বিড়ালের হরেক মজার কর্মকাণ্ডের মধ্যে বিতর্কের মুখেও পড়ে এই পর্ব। মূলত শিশুদের জন্য নির্মিত এই কার্টুন সিরিজে এমন দেখানো নিয়ে নৈতিক প্রশ্ন ওঠে।

ওই পর্বের শেষে দেখা যায়, আত্মহত্যা করতে ট্রেনের অপেক্ষা রেললাইনের উপর বসে আছে বিধ্বস্ত টম ও জেরি। ট্রেন আসার অপেক্ষায়। দূর থেকে ট্রেনের হুইসল শোনা যায়, বোঝা যায় এগিয়ে আসছে ট্রেন। আর সেখানেই শেষ হয় পর্ব।

কার্টুন নেটওয়ার্ক ও বুমরাঙ্গ এই পর্বটি সম্প্রচারে অস্বীকৃতি জানায়। আমেরিকান টিভিতে অবশ্য কালেভদ্রে পর্বটি দেখানো হয়। টিএনটি চ্যানেলে নব্বইয়ের দশকের গোড়ায় একবারমাত্র দেখানো হয়েছিল পর্বটি।

২০১০ সালের নভেম্বরে একবার কার্টুন নেটওয়ার্কের সাউথইস্ট এশিয়ায় এটি দেখানো হয়। অনেকের মতে এটিই টম অ্যান্ড জেরি সিরিজের শেষ পর্ব। তবে অনেকে জানান, ১৯৫৬ সালে ব্লু ক্যাট ব্লুজ এর পরও বেশ কয়েকটি পর্ব দেখা গেছে।

ব্লু ক্যাট ব্লুজ পর্বটিতে বন্ধু হিসেবে দেখা যায় টম ও জেরিকে। কিন্তু তাদের জীবনে আসে এক সুন্দরী সাদা বিড়াল। বন্ধু জেরিকে ভুলে তাকে কাছে পেতে পাগল হয়ে যায় টম। কিন্তু অন্য একটি বড়লোক বিড়ালের প্রেমে পড়ে সেই সুন্দরী বিড়াল। তার মোহে নিজেকে ২০ বছরের দাসত্বে বিক্রি করে দেয় টম। নিজের একটি হাত ও একটি পা-ও বিক্রি করে সে।

বন্ধুকে এই পথ থেকে ফেরাতে বহু চেষ্টা করেও পারে না জেরি। শেষ পর্যন্ত সেই সাদা বিড়াল টমকে ছেড়ে ধনী বিড়ালকেই বিয়ে করলে রেলে কেটে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় টম। বন্ধু টমের পাশে এসে ট্রেনের অপেক্ষায় বসে জেরিও।






মন্তব্য চালু নেই