মেইন ম্যেনু

শেষ বলে ভারতের হার

শেষ বলে জয়ের জন্য দরকার মাত্র ২ রান, ১ নিলে ম্যাচ টাই। আর এই কাজটাই করতে পারলেন না মহেন্দ্র সিং ধোনি। ডোয়াইন ব্রাভোর বলে শর্ট থার্ডম্যানে ক্যাচ দিয়ে দিলেন ধোনি আর ১ রানে হেরে গেল ভারত।

শনিবার ফ্লোরিডার সেন্ট্রাল ব্রোওয়ার্ড রিজিওন্যাল পার্ক স্টেডিয়াম টার্ফ গ্রাউন্ডে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারেই ১৭ রান নিয়ে বোলারদের করুণ সুরটা ঠিক করে দেন জনসন চার্লস ও লুইস। শুরুতে ভারতীয় বোলারদের ওপর চড়াও হন জনসন। মাত্র ৩৩ বলে ৭৯ রান করে সাজঘরে ফেরেন এই ব্যাটসম্যান।

এরপর দলকে এগিয়ে নেওয়ার দায়িত্বটা নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন লুইস। ২৫ বলে অর্ধশতকে পৌঁছানো এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান স্টুয়ার্ট বিনির ৫ বলে ছক্কা হাকিয়ে ৪৮ বলে পৌঁছান তিন অঙ্কে। ৪৯ বলের ইনিংসটি ৯টি ছক্কা ও ৫টি চারে সাজান এই ব্যাটসম্যান। তিন বলের মধ্যে দুই ব্যাটসম্যানকে হারানো ওয়েস্ট ইন্ডিজ শেষের দিকে ততটা দ্রুত রান তুলতে পারেনি। তবে কাইরন পোলার্ড ও অধিনায়ক কার্লোস ব্র্যাথওয়েইট দলকে আড়াইশ’ রানের কাছাকাছি নিয়ে যান। শেষ পর্যন্ত ২৪৫ রানেই থামে ক্যারিবিয়দের ইনিংস।

বিশাল লক্ষ্য তাড়ায় শুরুতেই অজিঙ্কা রাহানে ও বিরাট কোহলিকে হারায় ভারত। তবে রোহিত শর্মার সঙ্গে ৮৯ রানের জুটিতে দলকে এগিয়ে নেন লোকেল রাহুল। ২২ বলে অর্ধশতক করা রোহিত ফিরেন ৬২ রান করে। তার ২৮ বলের ইনিংসটি ৪টি করে ছক্কা-চারে সাজানো।

রোহিতের বিদায়ের পর অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির সঙ্গে ৮.১ ওভারে ১০৭ রানের দারুণ এক জুটি গড়ে দলকে জয়ের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যান রাহুল। শেষ ৬ বলে মাত্র ৮ রান দরকার ছিল ভারতের। কিন্তু প্রথম বলেই ক্যাচ তুলে দিলেন ধোনি, ক্যাচটি ফেলে দিলেন মারলন স্যামুয়েলস! পরের ৪ বলে ৫ রান, শেষ বলে আউটই হয়ে গেলেন ধোনি (২৫ বলে ৪৩), সেই স্যামুয়েলসের হাতেই ক্যাচ দিয়ে। অথচ উল্টো দিকেই দাঁড়িয়ে ৪৬ বলে সেঞ্চুরি করা লোকেশ রাহুল (১১০*)। কিন্তু সবই উলটে গেল ব্রাভোর ওই ওভারে। আর নাটকীয় এক জয় পেলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ






মন্তব্য চালু নেই