মেইন ম্যেনু

শেষ ম্যাচেও বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই সিদ্ধান্ত

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এবারের আসর বেশ কয়েকবার উত্তাল হয়েছে আম্পায়ারিং বিতর্কে। আজ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের শেষ ম্যাচেও আম্পায়াররা দিয়েছেন দুটি ভুল সিদ্ধান্ত। দুটিই গেছে বাংলাদেশের বিপক্ষে। একটি ব্যাটিংয়ের সময়, অন্যটি বোলিংয়ের সময়।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ৯ ওভার শেষে নিউজিল্যান্ডের স্কোর ছিল ৫৭/২। দশম ওভারের প্রথম বলে কলিন মুনরোকে আউট করার দারুণ সুযোগ পেয়েছিল বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসানের বলে এলবিডব্লিউর জোরালো আবেদন জানিয়েছিলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। কিন্তু সেই আবেদনে সাড়া দেননি আম্পায়ার। সিদ্ধান্তটা যেন বিশ্বাসই করতে পারছিলেন না সাকিব। পরে টেলিভিশন রিপ্লে থেকে দেখা যায়, বলটি নিশ্চিতভাবেই আঘাত হানত মিডল স্টাম্পে। মুনরো সে সময় ব্যাট করছিলেন আট রান নিয়ে। কিন্তু আম্পায়ারের ভুলে জীবন পেয়ে এই মুনরোই খেলেছেন কিউইদের পক্ষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ, ৩৫ রানের ইনিংস।

1459002816-Mashrafe-2

দ্বিতীয়বার বাংলাদেশ বাজে আম্পায়ারিংয়ের শিকার হয়েছে ব্যাটিংয়ের সময়। এবার আউট না হয়েও সাজঘরে ফিরতে হয়েছে মাশরাফি বিন মুর্তজাকে। বাংলাদেশের ইনিংসের ১৫তম ওভারে গ্রান্ট এলিয়টের বলে বিতর্কিত এলবিডব্লিউর কারণে আউট হয়েছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক। আম্পায়ার নিউজিল্যান্ডের ফিল্ডারদের আবেদনে সাড়া দিলেও পরে টেলিভিশন রিপ্লেতে দেখা যায় বলটি কোনোভাবেই স্টাম্পে আঘাত হানত না। বেরিয়ে যেত লেগস্টাম্পের অনেক বাইরে দিয়ে।

1459002824-Mashrafe-3

বিশ্বকাপের শুরু থেকেই বাংলাদেশকে খেলতে হয়েছে নানাবিধ বৈরী পরিস্থিতির মধ্যে। তাসকিন আহমেদ ও আরাফাত সানির বোলিং অ্যাকশন অবৈধ ঘোষণা করায় বড়সড় ধাক্কা খেলেছিল লাল-সবুজের দল। আজ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে শেষ ম্যাচেও আম্পায়ারদের এই দুই বিতর্কিত সিদ্ধান্তের কষ্ট নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে মাশরাফিদের।

মাঠে আম্পায়ারদের এমন বিতর্কিত সিদ্ধান্তের কারণেই টেস্ট ও ওয়ানডেতে চালু করা হয়েছে রিভিউ পদ্ধতি। টি-টোয়েন্টিতে এখনো তেমন কিছু দেখা না গেলেও সেই দাবি ক্রমশ জোরালো হচ্ছে।






মন্তব্য চালু নেই