মেইন ম্যেনু

শ্রমিক হত্যার দায়ে সহকর্মীর ফাঁসির রায়

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় ১৬ বছর বয়সী এক শ্রমিককে গলা কেটে হত্যার দায়ে তার এক সহকর্মীকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত।

রোববার গাজীপুরের জেলা ও দায়রা জজ একেএম এনামুল হক চার বছর আগের এ হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মো. আব্দুল হালিম (২৬) বগুড়া জেলার সোনাতলা থানার মোনার পটল গ্রামের মো. মাসুদ মণ্ডলের ছেলে। তিনি কালিয়াকৈরের মৌচাক এলাকার দক্ষিণপাড়া এলাকায় একটি বাড়িতে ভাড়া থাকতেন।

মৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি বিচারক তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন বলে পিপি অ্যাডভোকেট হারিছ উদ্দিন আহমদ জানান।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১১ সালের ১৬ মার্চ কালিয়াকৈরের মৌচাক ইউনিয়নের ডুলিপাড়া এলাকায় হানিফ স্পিনিং মিলের ভেতর থেকে মো. মাসুদ মিয়া নামের এক কিশোর শ্রমিকের গলা কাটা লাশ উদ্ধার করা হয়।

তার বাবা শাহ আলম ওই রাতেই কালিয়াকৈর থানায় অজ্ঞাতপরিচয় আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কালিয়াকৈর থানার এসআই মো. সাইফুল আলম জানান, ওই কারখানার কর্মী আব্দুল হালিমকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করার পর তিনি হত্যার কথা স্বীকার করেন।

ওই বছর ১৪ মে হালিমকে আসামি করে অভিযোগপত্র দেন তদন্ত কর্মকর্তা।

দীর্ঘ শুনানি ও ১১ জনের সাক্ষ্য শেষে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় হালিমকে দোষী সাব্যস্ত করে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেয় আদালত।

নিহত কিশোর মাসুদের বাড়ি রংপুরের পীরগাছা উপজেলার জয়সেন গ্রামে।






মন্তব্য চালু নেই