মেইন ম্যেনু

শ্রাবন্তীর অজানা সাত তথ্য

টালিগঞ্জের অভিনেত্রী শ্রাবন্তী। দীর্ঘ দিন ধরেই তার প্রেমের গুঞ্জন বাতাসে উড়ছে। তবে সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে সম্প্রতি ঘোষণা দিয়েছেন তার প্রেমিক কৃষাণ ভিরাজের সঙ্গে বাগদান করতে যাচ্ছেন তিনি। আর এক মাসের মধ্যেই তাদের বাগদান সম্পন্ন হবে বলেও ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে।

প্রিয় অভিনেত্রীকে পর্দায় দেখে থাকেন শ্রাবন্তী ভক্তরা। যারপরনাই তার ব্যক্তি জীবন বা ভালো লাগার অনেক কিছুই দর্শকদের আড়ালেই থেকে যায়। এই অভিনেত্রীর অজানা অনেক তথ্য রয়েছে, যা তার ভক্তরা জানেন না। শ্রাবন্তীর অজানা সাত তথ্য নিয়ে সাজানো হয়েছে এই প্রতিবেদন।

এক. ১৯৯৭ সালে শ্রাবন্তীর প্রথম ‘মায়ের বাঁধন’ সিনেমায় অভিনয় করেন।সিনেমাটি পরিচালনা করেন স্বপন সাহা। এতে প্রসেনজিৎ, শতাব্দী রায়, ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর মতো অভিনয়শিল্পীরা অভিনয় করেন। এতে শিশু চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন শ্রাবন্তী।

দুই. ২০০৩ সালে নির্মাতা রাজিব বিশ্বাসেকে বিয়ে করেন শ্রাবন্তী। তখন রাজীব সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করতেন। মজার ব্যাপার হলো তখন শ্রাবন্তীর বয়স মাত্র ১৫ বছর।

তিন. বিয়ের পরই সিনেমা জগৎ থেকে সরে যান শ্রাবন্তী। দীর্ঘ পাঁচ বছর পর রবি কিনাগীর ‘ভালোবাসা ভালোবাসা’ সিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্রাঙ্গনে ফিরেন তিনি।

চার. শ্রাবন্তী-রাজীবের বিচ্ছেদ নিয়ে টালিগঞ্জে কম কানাঘুষো হয়নি। অনেকে বলেন, চিত্রনায়ক দেবের সঙ্গে শ্রাবন্তীর বন্ধুত্ব নিয়ে সংসারে তাদের অশান্তি শুরু। যদিও রাজীবের বিরুদ্ধে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কের অভিযোগ ওঠেছিল।

পাঁচ. রাজীব-শ্রাবন্তীর ডিভোর্সের পর ব্যবসায়ী বিক্রম শর্মার সঙ্গে শ্রাবন্তীর সম্পর্কের কথা সংবাদমাধ্যমে ছড়িয়েছিল। তবে শ্রাবন্তী এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, বিক্রমের সঙ্গে তার সম্পর্ক বন্ধুত্বের। তাকে বিয়ে করবেন এমনটা তিনি ভাবেননি।

ছয়. শ্রাবন্তী সেলফি তুলার রাণী। মুহুর্মুহু সেলফি তুলেন এবং সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে আপলোড করেন।তা ছাড়া প্রায় প্রতি ৪৮ ঘ্ণ্টায় হোয়াটসঅ্যাপে ডিপি পরিবর্তন করেন এই অভিনেত্রী।

সাত. শ্রাবন্তীর জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মানুষ তার ছেলে ঝিনুক। বিচ্ছেদের পর শ্রাবন্তীর কাছেই থাকে তার ছেলে।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই