মেইন ম্যেনু

শ্রীনির যত কাণ্ড

অবশেষে বিশ্বক্রিকেট থেকে মুছে যাচ্ছে শ্রীনির নাম। ভারতীয় ক্রিকেটের কলঙ্কিত এই সংগঠক কালি লাগিয়েছেন পুরো ক্রিকেট দুনিয়ায়। কিন্তু পাপ তাকে ছাড়ল না। ঠিকই বিদায় নিতে হল আইসিসি থেকে।

কী করেছিলেন শ্রীনি?

বিশ্বকাপে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচে তিনি ‘অযাচিত প্রভাব’ খাটিয়েছিলেন বলে অভিযোগ আছে। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে এই অভিযোগ তোলার পর মোস্তফা কামালের দিকে কুনজর দেন তিনি। এমনকি নিয়ম ভেঙে বিশ্বকাপজয়ী দলকে ট্রফি তুলে দেন। আইসিসির নিয়মানুযায়ী প্রেসিডেন্টই বিজয়ী দলের হাতে ট্রফি দেন। কিন্তু সেদিন ট্রফি দেন সংস্থার চেয়ারম্যান। প্রেসিডেন্ট কামাল আগের রাতে শ্রীনির সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়ান।

এখানেই শেষ নয়। আইপিএলে দল কেনায় অনিয়ম করেন শ্রীনি। চেন্নাই দলের মূল্য দেখান মাত্র পাঁচ লাখ টাকা! ভ্যালুয়েশন কমিয়ে বিসিসিআইকে ঠকানোর চেষ্টা করে ধরা পড়ে যান।

এছাড়া নিয়ম ভেঙে গোপনে সুন্দর রামনকে আইসিসিতে ভারতীয় বোর্ডের প্রতিনিধি করতে চেয়েছিলেন।

ভারতীয় বোর্ড তহবিল থেকে ১৪ কোটি টাকা এক গোয়েন্দা সংস্থাকে দেন তিনি। গোয়েন্দারা বোর্ড সদস্যদের ইমেইল এবং ফোন ট্যাপ করত।

আরো অভিযোগ আছে, আইপিএলের ফিক্সিং সম্পর্কে সব কিছু জেনেও চুপ ছিলেন তামিল নাড়ুর কলঙ্কিত এই ক্রীড়া সংগঠক। কারণ তার পরিবারের বেশ কয়েকজন সদস্য এই ফিক্সিং নিয়ন্ত্রণ করতেন।






মন্তব্য চালু নেই