মেইন ম্যেনু

“শ্রীমঙ্গলে গর্ত থেকে নবজাতক উদ্ধার”

সৌরভ আদিত্য শ্রীমঙ্গল(মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি:: মৌলভীবাজার শ্রীমঙ্গলের সাতগাঁও ইউনিয়নের হুগলিছড়া চাবাগানে ময়লা আবর্জনা দিয়ে ঝাঁপ দেয়া অবস্থায় গর্ত থেকে উদ্ধার করা নবজাতক কন্যা শিশুটি উদ্ধারের সাত ঘন্টার মাথায় মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার সকাল ১০টারদিকে বাগানের ছমির মিয়ার ৬ বছরের মেয়ে শাহেনা বেগম জাম্বুরা গাছে জাম্বুরা পারতে যায়। তখন গাছ থেকে একটি জাম্বুরা পড়ে গড়িয়ে ওই শিশুবাচ্চার গর্তে গিয়ে পড়ে। তখন নবজাতক বাচ্চাটি কান্না করলে শাহানা এলাকার দুর্জ পাশা ও লক্ষী শুক্ল বৈদ্যকে সঙ্গে নিয়ে গর্তে ঝাঁপ দেওয়া অবস্থায় নবজাতককে উদ্ধার করে হুগলী ছড়া চাবাগানের মেডিকেলে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। সেখানে নবজাতকটিকে দেখতে শত শত মানুষ ভিড় জমায় কিন্তু বাবা মার দাবীদার কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

সাতগাঁও ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার স্বপন কুমার রায় বলেন,হুগলীছড়া চাবাগানের বেড়া ঘরের পাশে জাম্বুরা গাছের নীচে একটি গর্তে নবজাতক এ বাচ্চাটিকে ময়লা আর্বজনা দিয়ে ঢেকে রাখে।

তিনি আরো জানান,বিকেলে শিশুটির শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে স্থানীয় চেয়ারম্যান মিলন শীল সন্ধ্যা সাতটারদিকে শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে সেখানের কর্তব্যরত ডাক্তার রিপা পাল শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন।

ডাক্তার রিপা পাল সন্ধ্যার বলেন, সকালে উদ্ধার হওয়া শিশুটি যদি উদ্ধারের সাথে সাথেই হাসপাতালে নিয়ে আসা হতো তাহলে শিশুটিকে হয়তো বাঁচানো সম্ভব হতো। তিনি বলেন শিশুটি গর্তে থাকায় ঠিক মতো শ্বাসপ্রশ্বাস নিতে পারেনি। এছাড়া শিশুটি ঠিক মতো প্রসবও হয়নি।






মন্তব্য চালু নেই